kalerkantho


ইসলামী আন্দোলনের ঘোষণা

২১ সেপ্টেম্বর ঢাকায় জাতিসংঘ অফিস ঘেরাও করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



মিয়ানমারের মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনীর বর্বর নির্যাতনের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় আগামী ২১ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের ঢাকার অফিস ঘেরাও কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। এ ছাড়া রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ না হলে মিয়ানমার অভিমুখে লংমার্চের কর্মসূচি দিয়েছে দলটি।

গতকাল বুধবার রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতন ও গণহত্যা বন্ধের দাবিতে ঢাকায় মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিপূর্ব সমাবেশে ইসলামী আন্দোলনের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম এই কর্মসূচি দেন।

চরমোনাই পীর বলেন, ‘যাদের মধ্যে মানবতা আছে তারা মিয়ানমারে নিষ্ঠুরতা সহ্য করবে না। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর বিবেকও নাড়া দিয়েছে, এ জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানাই। ’ এ সময় তিনি রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবি জানান।

এর আগে মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের জন্য সকাল ১০টা থেকে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে জড়ো হতে থাকে ইসলামী আন্দোলনের নেতাকর্মীরা। সাড়ে ১১টার দিকে মিছিলসহ মিয়ানমার দূতাবাসের উদ্দেশে রওনা করে তারা। মিছিলটি পল্টন হয়ে বিজয়নগর, নাইটিঙ্গেল ও কাকরাইল মোড় হয়ে শান্তিনগর পৌঁছলে পুলিশ বেরিকেড দিয়ে তাতে বাধা দেয়। এ সময় দলটির আমির সেখানে কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করে মোনাজাত করেন।

পরে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, মহাসচিব অধ্যক্ষ ইউনুছ আহমাদ, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক এ টি এম হেমায়েত উদ্দিনসহ পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল মিয়ানমার দূতাবাসে গিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করে।


মন্তব্য