kalerkantho


ইসির নিবন্ধন চায় ৭৬ রাজনৈতিক দল

মাহমুদুর রহমান মান্না ও মঈন উদ্দীন খান বাদলের দলও রয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি   

২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে গত কয়েকবারের মতো এবারও নিবন্ধনের জন্য নতুন ৭৬টি রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবেদন জমা দিয়েছে। এ ছাড়া আরো ১৫টি দল আবেদন জমা দেওয়ার জন্য সময় বাড়াতে ইসিকে অনুরোধ জানিয়েছে। গত রবিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত নিবন্ধনের জন্য আবেদন জমা দেওয়ার শেষ সময় ছিল।

নিবন্ধন চাওয়া দলগুলোর মধ্যে মাহমুদুর রহমান মান্নার নেতৃত্বাধীন নাগরিক ঐক্য ও জাসদের একাংশের নেতা মঈন উদ্দীন খান বাদলের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (বাংলাদেশ জাসদ) রয়েছে।

ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানান, নিবন্ধনের জন্য আবেদন করা বেশির ভাগ দলই নাম ও প্যাডসর্বস্ব। বেশ কিছু সংগঠনও রাজনৈতিক দল হিসেবে আবেদন করেছে।

নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৭৬টি রাজনৈতিক দলের আবেদন পেয়েছি। এ ছাড়া ১৫টি দল আবেদনের সময় বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছিল। আমরা আবেদনের সময় বাড়াব না।’

নতুন দল নিবন্ধন প্রক্রিয়ার বিষয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ আরো বলেন, রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের শর্ত অনুযায়ী দলগুলোর আবেদন যাচাই করা হবে। প্রয়োজনে মাঠপর্যায়ে তদন্ত করা হবে। তদন্তে যেসব দল নিবন্ধনের যোগ্য বিবেচিত হবে, সেসব দলকে নিবন্ধন দিতে কমিশনে সুপারিশ করা হবে। কমিশন এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। যেসব দল নিবন্ধন পাবে তারা জাতীয় সংসদ ও স্থানীয় সরকারের সব নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে।

প্রসঙ্গত, দল  নিবন্ধনের জন্য গত ৩০ অক্টোবর গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে ইসি। এতে আবেদনপত্র সংগ্রহ ও জমা দেওয়ার জন্য গত রবিবার পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়।

আবেদনকারী অন্য দলগুলোর মধ্যে রয়েছে গণসংহতি আন্দোলন, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম), বাংলাদেশ আলোকিত পার্টি, বাংলাদেশ সমাধান ঐক্য পার্টি, বাংলাদেশ কর্মসংস্থান আন্দোলন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ-ভাসানী গ্রুপ), বাংলাদেশ মঙ্গল পার্টি, বাংলাদেশ পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি (বিপিডিপি), বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দল (বিডিপি), জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, নেজামে ইসলাম পার্টি, বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামী লীগ (বাকশাল), বাংলাদেশ জনতা পার্টি, বাংলাদেশ রিপাবলিকান পার্টি (রফিকুল ইসলাম), বাংলাদেশ রিপাবলিকান পার্টি (আবু হানিফ হৃদয়), ইনসানিয়া বিপ্লব বাংলাদেশ, বাংলাদেশ সমাজ উন্নয়ন পার্টি (বিএসডিপি), বাংলাদেশ জাতীয় লীগ, বাংলাদেশ নিউ সংসদ লীগ (বিএনএসএল), বাংলাদেশ পরিবহন লেবার পার্টি, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), নাকফুল বাংলাদেশ, তৃণমূল ন্যাশনাল পার্টি, বাংলাদেশ সত্যব্রত আন্দোলন, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি, বাংলাদেশ মানবাধিকার আন্দোলন, সোনার বাংলা উন্নয়ন লীগ, বাংলাদেশ সমাজ উন্নয়ন পার্টি, ন্যাশনাল কংগ্রেস বাংলাদেশ, বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক পার্টি, গণতান্ত্রিক ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ভাসানী), বাংলাদেশ ঘুষ নির্মূল পার্টি, বাংলাদেশ গণশক্তি দল, বাংলাদেশ সততা দল, বাংলাদেশ তৃণমূল পার্টি, বেঙ্গল জাতীয় কংগ্রেস (বিজেসি), বাংলাদেশ হিন্দু লীগ, বাংলাদেশ জনতা ফ্রন্ট, বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক পার্টি (কেএসপি), বাংলাদেশ মাইনরিটি জনতা পার্টি, সুশীল সামাজিক আন্দোলন, লিবারেল পার্টি (এলপি), বাংলাদেশ রামকৃষ্ণ পার্টি, বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি, মুক্ত রাজনৈতিক আন্দোলন, বাংলাদেশ জাতীয় দল, জাতীয় পরিবার কল্যাণ পার্টি (জেপিকেপি), নতুন ধারা বাংলাদেশ (এনডিবি), বাংলাদেশ জাতীয় লীগ (এ কে এম শহীদুল্লাহ), সাধারণ জনতা পার্টি, বাংলাদেশ ফরায়েজী আন্দোলন, বাংলাদেশ তৃণমূল কংগ্রেস, ঐক্য ন্যাপ, বাংলাদেশ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, মুক্তিযোদ্ধা কমিউনিজম ডেমোক্রেটিক পার্টি, বাংলাদেশ গণ-আজাদী লীগ, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি, বাংলাদেশ শান্তির দল, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, কৃষক শ্রমিক পার্টি, জনস্ব্বার্থে বাংলাদেশ, জনতার কথা বলে, বাংলাদেশ তৃণমূল লীগ, বাংলাদেশ জনতা পার্টি, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, নাগরিক ঐক্য, মৌলিক বাংলা, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (বিএনডিপি), বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট (বিডিএম), ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি বাংলাদেশ, বাংলাদেশ কংগ্রেস ও বাংলাদেশ আওয়ামী পার্টি (ভাসানী ন্যাপ)।


মন্তব্য