kalerkantho


জন্মবার্ষিকীতে বক্তারা

সাহিত্যে শোষিত মানুষের কথা বলেছেন শওকত ওসমান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সাহিত্যে শোষিত মানুষের কথা

বলেছেন শওকত ওসমান

কথাসাহিত্যিক শওকত ওসমান ছিলেন সমাজের প্রতি দায়বদ্ধ অসাধারণ এক মানুষ। কলমে মানুষের মনের ভাষা তুলে এনে তিনি সাহিত্য রচনা করেছেন। সাহিত্যসাধনায় আজীবন চিত্রিত করেছেন শোষিত মানুষের কথা। এর জন্য কখনো পরোয়া করেননি শাসকের রক্তচক্ষুকে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে ১০১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘শতাব্দী পেরিয়ে শওকত ওসমান’ শীর্ষক আলোচনাসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে এবার প্রথমবারের মতো শওকত ওসমান স্মৃতি সংসদের পক্ষ থেকে ভাষাসৈনিক আহমদ রফিককে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়। সম্মাননা হিসেবে তাঁকে এক লাখ টাকার চেক ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পাশাপাশি এখন থেকে প্রতিবছর সংসদের পক্ষ থেকে একজন সাহিত্যিককে আজীবন সম্মাননা ও একজন সাহিত্যিককে পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা দেওয়া হয়। এর জন্য সহায়তা দেবে এপেক্স ফুটওয়্যার।

ভাষাসৈনিক আহমদ রফিকের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, এপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা সৈয়দ মঞ্জুর এলাহী, শওকত ওসমান স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম লিটু প্রমুখ।

‘শত জনমের স্বর্গ তুমি আমার জীবনে এলে’, ‘সখী ভাবনা কাহারে বলে’, ‘প্রতিদিন আমি এ জীবন স্বামী’ গানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। স্বাগত বক্তব্য দেন রাকিবুল ইসলাম লিটু।

স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, সমাজে কিছু মানুষ থাকেন যাঁরা পথপ্রদর্শকের ভূমিকা পালন করেন। শওকত ওসমান তেমনই একজন পথপ্রদর্শক ছিলেন। তিনি সাহিত্য চর্চা করলেও হতে চেয়েছিলেন রাজনীতিবিদ। লেখার মাধ্যমে তিনি সেটিই ফুটিয়ে তুলেছেন। সাহিত্যের মাধ্যমে সব সময় তিনি সমাজ ও দেশের মানুষের কথা বলেছেন।

আহমদ রফিক বলেন, ‘আমরা জাতি হিসেবে সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য-অসচেতন জাতি। শওকত ওসমান প্রখর রাজনীতিসচেতন একজন মানুষ ছিলেন। এভাবেই তিনি অন্য সাহিত্যিকদের চেয়ে আলাদা হয়ে গেছেন। বিশ্বসাহিত্য পাঠে শওকত ওসমানের অসাধারণ অভিজ্ঞতা ছিল, যার মাধ্যমে গড়ে উঠেছিল তাঁর জীবনবোধ। শওকত ওসমানের প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা জানাতে হলে তাঁর সাহিত্য পাঠ জরুরি। মনকে শাণিত ও বুদ্ধিদীপ্ত করতে শওকত ওসমানের বই পড়ার বিকল্প নেই।’


মন্তব্য