kalerkantho


প্রধানমন্ত্রী বললেন

যখনই ক্ষমতায় এসেছি দেশের উন্নয়ন করেছি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



যখনই ক্ষমতায় এসেছি দেশের উন্নয়ন করেছি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফেনীর মহিপাল ফ্লাইওভারের উদ্বোধন করেন। ছবি : পিআইডি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার দেশের সার্বিক উন্নয়নে অব্যাহত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং এই লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমরা যখনই ক্ষমতায় এসেছি, তখনই দেশের সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে কাজ করেছি।’

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নে নোয়াখালী বন্যা নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। একই স্থান থেকে ফেনীর মহিপালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানবাহন চলাচলের জন্য দেশের প্রথম ছয় লেন ফ্লাইওভার উদ্বোধন করেন তিনি। এ ছাড়া প্রথমবারের মতো নগরবাসীর গণপরিবহনে যাতায়াতের সুবিধার জন্য ডিজিটাল ‘র‌্যাপিড পাস’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

নোয়াখালী বন্যা নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প উদ্বোধনকালে শেখ হাসিনা বলেন, ‘হোয়াংহো আর চীনের দুঃখ নাই। আমি চাই নোয়াখালী খালও আর নোয়াখালীর দুঃখ হয়ে থাকবে না।’

৩২৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের আওতায় জলাবদ্ধতা নিরসন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও নিষ্কাশনব্যবস্থা উন্নয়নে নোয়াখালী খাল এবং জেলার ২৩টি খাল পুনঃখনন করা হবে। সেই সঙ্গে ১৬০ বর্গকিলোমিটার এলাকার পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। এ প্রকল্পের আওতায় ১৮২ কিলোমিটার খাল পুনঃখনন, বামনি নদীতে ড্রেজিং, স্লুইস গেট, ক্লোজার ও রেগুলেটর নির্মাণ এবং ১০ কিলোমিটার নদীতীর সংরক্ষণ করা হবে। এ প্রকল্প পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনী যৌথভাবে প্রকল্পের বাস্তবায়ন করবে। আগামী ২০২১ সালের জুনের মধ্যে এর কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে গণভবন প্রান্তে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, পানিসম্পদমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, সেনবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।

একই স্থান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফেনীর মহিপালে দেশের প্রথম ও একমাত্র ছয় লেনের ফ্লাইওভার উদ্বোধন করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘মহিপালের যানজট ছিল বিরাট সমস্যা। এখানকার যানজট দূর করার জন্যই ফ্লাইওভারটা করা।’

মহিপাল ফ্লাইওভার ছয় লেনের হলেও সেতুর নিচের দুই পাশে আরো চারটি সার্ভিস লেন চালু থাকবে। মোট লেনের সংখ্যা হবে ১০। এই প্রকল্পে মোট ব্যয় হয়েছে ১৮১ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে।

৬৬০ মিটার দীর্ঘ ও ২৪ দশমিক ৬২ মিটার প্রশস্ত এই ফ্লাইওভার চালু হওয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ও ফেনী-লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক ব্যবহারকারীদের ‘সুদিন এসে যাচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

গণভবন থেকেই বিআরটিসি কর্মকর্তা ও যাত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশে প্রথমবারের মতো নগরবাসীর গণপরিবহনে যাতায়াতের সুবিধার্থে ডিজিটাল ‘র‌্যাপিড পাস’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।


মন্তব্য