kalerkantho


‘৫ জানুয়ারি’

বিএনপির মিছিলে পুলিশের বাধা, সংঘর্ষে আহত ৩৪

বরিশালে চার ছাত্রদলকর্মীকে কুপিয়ে জখম

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দশম সংসদ নির্বাচনের চার বছর পূর্তির দিন গতকাল শুক্রবার দেশের কয়েকটি স্থানে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত ৩৪ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ ১১ জনকে আটক করেছে। দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ আখ্যা দিয়ে জেলা-উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল করার চেষ্টা করলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। তবে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ ব্যারিকেডের মধ্যে দলীয় কার্যালয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে বিএনপি।

বরিশালে মিছিল করে ফেরার সময় চার ছাত্রদলকর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল দুপুরে নগরীর সিঅ্যান্ডবি রোড সংলগ্ন তিনমাথা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল সকালে খুলনায় জেলা বিএনপি কালো পতাকা মিছিল বের করলে পুলিশ তাতে লাঠিপেটা করে। এতে ১৪ নেতাকর্মী আহত হয়। কেরানীগঞ্জে বিএনপির নেতাকর্মীর সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বিএনপির মিছিলে পুলিশ লাঠিপেটা করেছে। এতে ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তবে সিলেট ও মেহেরপুরে নির্বিঘ্নে মিছিল-সমাবেশ করেছে বিএনপি। বিস্তারিত আমাদের আঞ্চলিক অফিস, নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত ৩৪ : খুলনায় জেলা বিএনপি কালো পতাকা মিছিল বের করলে পুলিশ তাতে বাধা দিয়ে লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে অন্তত ১৪ জন আহত হয়েছে। একই সঙ্গে পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ। বিএনপি সূত্রে জানা যায়, সকাল সোয়া ১১টার দিকে খালিশপুর থানা বিএনপির একটি মিছিল থানার মোড়ে পৌঁছলে পুলিশ মিছিলের পেছন থেকে লাঠিপেটা করে। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল, চেয়ার ছুড়লে উভয় পক্ষের মধ্যে পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এর আগে সকাল ১০টায় একই স্থানে খুলনা জেলা বিএনপি শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে।

কেরানীগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দিয়ে পুলিশ লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়। পুলিশের দাবি, বিক্ষোভকারীরা হামলা চালালে আত্মরক্ষা ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলি করেছে। এ সময় ছয়জনকে আটক করা হয়।

জানা যায়, গতকাল বিকেলে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট নিপুন রায়ের নেতৃত্বে একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি কেরানীগঞ্জ মডেল থানার মনু ব্যাপারীর ঢাল থেকে আমিরাবাগ যাওয়ার পথে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। পুলিশ মিছিলের ওপর গুলি ছুড়ে এবং লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, পুলিশ জানমাল রক্ষার্থে ফাঁকা গুলি ছোড়ে। তবে কেউ আহত হয়নি। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ লাঠিপেটা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে গৌরীপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আহাম্মদ তায়েবুর রহমান হিরণসহ অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকালে উপজেলা চেয়ারম্যান আহাম্মদ তায়েবুর রহমান হিরণের নেতৃত্বে মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণের চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ এসে তাদের বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করে মিছিল করার চেষ্টা করলে পুলিশ লাঠিপেটা ও ধাওয়া করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়।

গৌরীপুর থানার ওসি মো. দেলোয়ার আহাম্মদ জানান, মিছিলে কোনো ধরনের লাঠিপেটার ঘটনা ঘটেনি। পুলিশের ধাওয়ায় দৌড়ে যাওয়ার সময় কেউ পড়ে গিয়ে আহত হতে পারে।

নারায়ণগঞ্জে বিক্ষিপ্তভাবে মিছিল করেছে বিএনপি। তবে জেলা ও মহানগর বিএনপির মিছিলে পুলিশ কয়েক দফা লাঠিপেটা করলে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়াধাওয়ির ঘটনা ঘটে। সকাল ১০টায় শহরে মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের নেতৃত্বে মিছিল বের হয়। পরে গলাচিপা মোড়ে জেলা স্কাউট ভবনের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

৪ ছাত্রদলকর্মীকে কুপিয়ে জখম : বরিশালে কালো পতাকা মিছিল করে ফেরার সময় চার ছাত্রদলকর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল দুপুরে নগরীর সিঅ্যান্ডবি রোড সংলগ্ন তিনমাথা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন ছাত্রদলকর্মী সিয়াম, আশিক, শামীম ও রিজভী। এর মধ্যে গুরুতর অবস্থায় রিজভীকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আফরোজা খানম নাসরিনের বাড়িতে হামলার চেষ্টা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি বলেন, ‘মিছিল করে ফেরার সময় ছাত্রদলকর্মী সিয়াম, আশিক, শামীম ও রিজভীর ওপর হামলা চালায় জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আতিকুল্লাহ মুনিম, সাজ্জাদ সেরনিয়াবাত ও মহানগর ছাত্রলীগের রইচ আহম্মেদ মান্না। তাদের কুপিয়ে আহত করা হয়।’ 

এ বিষয়ে জানতে ফোন করা হলে জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আতিকুল্লাহ মুনিম ও সাজ্জাদ সেরনিয়াবাতের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বিভিন্ন স্থানে বিএনপির মিছিলে পুলিশের বাধা : দিনাজপুরে বিরল, ফুলবাড়ীসহ বিভিন্ন উপজেলায় পুলিশি বাধায় মিছিল বের করতে পারেনি বিএনপি। তবে শহরে মহিলা দল মিছিল করে। নীলফামারী জেলা কার্যালয় থেকে বিএনপি মিছিল বের করতে চাইলে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে তারা। নওগাঁ শহরের কেডির মোড় কার্যালয় থেকে বিএনপি একটি মিছিল বের করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে সেখানে তারা সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। ঝালকাঠিতে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে নেতাকর্মীরা জড়ো হলে পুলিশ ছত্রভঙ্গ করে দেয়। রাজশাহীতে মহানগর বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনে মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। তবে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে নেতাকর্মীরা। পিরোজপুরে পুলিশের বাধায় মিছিল করতে পারেনি বিএনপি। তবে দলীয় কার্যালয়ে সমাবেশ করে তারা। জামালপুরে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়ে যায়। পরে তারা দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে।


মন্তব্য