kalerkantho


ধর্মপাশায় পুলিশের অভিযানে ভারতীয় পণ্য তীরে রেখে পালাল ট্রলার!

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলাধীন বৌলাই নামক নৌপথে অবৈধভাবে পাচারকালে যাত্রীবাহী একটি ট্রলার থেকে প্রায় ১৫ লাখ টাকার ভারতীয় বিভিন্ন প্রসাধনী পণ্য জব্দ করেছে ধর্মপাশা নৌ-ফাঁড়ি পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার বৌলাই নৌপথের জয়শ্রী ট্রলার ঘাট থেকে ভারতীয় বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পণ্যগুলো জব্দ করা হয়।

তবে নৌ পুলিশ অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ মালপত্র আটক করতে পারলেও রহস্যজনক কারণে যাত্রীবাহী ওই ট্রলারটিসহ এর সঙ্গে জড়িত কোনো কালোবাজারিকে আটক না করায় এ নিয়ে এলাকাবাসীর মনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। পুলিশ দাবি করছে, পুলিশের অভিযানের মুখে কালোবাজারিরা পণ্যগুলো তীরে রেখে ট্রলারযোগে পালিয়ে গেছে।

ধর্মপাশা নৌ-ফাঁড়ি থানার ইনচার্জ পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান জানান, প্রতিদিন সকাল ৮টার দিকে ভারতের মেঘালয় পাহাড়ঘেঁষা সুনামগঞ্জের বিশ্বম্বরপুর উপজেলা সদর ট্রলার ঘাট থেকে যাত্রীবাহী ওই ট্রলারটি প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে পাশের ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ট্রলার ঘাটে এসে পৌঁছে। ওই ট্রলারে করে এ নৌপথ দিয়ে এলাকার একটি কালোবাজারি চক্র প্রায়ই অবৈধভাবে ভারতীয় বিভিন্ন প্রসাধনসামগ্রী নিয়ে আসে বলে তথ্য ছিল। তখন থেকেই পুলিশ সদস্যরা ওই কালোবাজারি চক্রটিকে ধরার চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যাত্রীবাহী ওই ট্রলার দিয়ে জয়শ্রী ট্রলার ঘাটে এলে পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে ৯টি বস্তায় ভর্তি জনসন সাবান ও ফেসওয়াশ আটক করে। তিনি বলেন, ‘তবে আমরা সেখানে উপস্থিত হওয়ার আগেই মালপত্র নদীর পাড়ে রেখে যাত্রীবাহী ট্রলারটি নিয়ে কালোবাজারিরা পালিয়ে যায়। এ সময় আমরা ধাওয়া করেও তাদের ধরতে পারিনি।’ এসআই মিজান আরো বলেন, ‘পরে আমরা আটককৃত মালের একটি জব্দ তালিকা তৈরি করে তা ওই দিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে ধর্মপাশা থানা-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করি।

ধর্মপাশা থানার ওসি সুরঞ্জিত তালুকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘জব্দকৃত ভারতীয় জনসন ব্র্যান্ডের ওই সব সাবান ও ফেসওয়াশ থানায় নিয়ে আসা হলেও আমরা এখনো ওই সব মালপত্রের মূল্য নির্ধারণ করতে পারিনি। তবে শিগগিরই আমরা বসে ওই সব মালপত্রের মূল্য নির্ধারণ করব।’


মন্তব্য