kalerkantho


সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে খাবার দিচ্ছে ডাব্লিউএফপি

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কক্সবাজারে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে জরুরি খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডাব্লিউএফপি)। জাতিসংঘ মহাসচিবের উপমুখপাত্র ফারহান হক গত শুক্রবার রাতে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান। তিনি বলেন, ডাব্লিউএফপির নতুন এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে কক্সবাজারে ৯০ শতাংশের বেশি রোহিঙ্গা জরুরি খাদ্য সহায়তা পেলেও তাদের বৈচিত্র্যময় ও সুষম খাবার পাওয়ার সুযোগ সীমিত থাকা বড় উদ্বেগের বিষয়।

ফারহান হক বলেন, গত বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে ডাব্লিউএফপি ‘রোহিঙ্গা ইমার্জেন্সি ভালনারেবিলিটি অ্যাসেসমেন্ট’ পরিচালনা করে। নতুন করে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য ডাব্লিউএফপি এ বছর ই-ভাউচার কর্মসূচি জোরদার করবে। তিনি বলেন, বর্তমানে প্রায় ৯০ হাজার রোহিঙ্গা ডব্লিউএফপির ই-ভাউচার কার্যক্রমে নিবন্ধিত আছে। এ কর্মসূচির আওতায় তারা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে মাসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ পেয়ে থাকে। এটি দিয়ে তারা নির্দিষ্ট দোকান থেকে চাল, ডাল, টাটকা সবজি, মরিচ, ডিম ও শুঁটকি মাছসহ ১৯ ধরনের খাদ্য কিনতে পারে। ডাব্লিউএফপি সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে খাদ্য ও খাদ্যের জন্য ভাউচার দিচ্ছে।

ইন্টার সেক্টর কো-অর্ডিনেশন গ্রুপের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৫ আগস্টের পর থেকে ছয় লাখ ৫৫ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এর আগে থেকে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা যোগ করলে তা প্রায় ১০ লাখে দাঁড়াতে পারে। চার মাসেরও কম সময়ে বাংলাদেশ প্রায় সাড়ে ৯ লাখ রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক নিবন্ধন সম্পন্ন করেছে।


মন্তব্য