kalerkantho


একের পর এক প্রতারণা অবশেষে ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কারো কাছ থেকে চালের ব্যবসার নামে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা, কারো কাছ থেকে গরু কেনার নামে নিয়েছেন লাখ টাকা, আবার বাড়ির মালিকের কাছ থেকেও বিভিন্ন সময় নানা অজুহাতে ধার হিসেবে নিয়েছেন হাজার হাজার টাকা। কিন্তু সেই টাকা ফেরত না দিয়ে নানা টালবাহানা করছিলেন এত দিন। তবে এবার তিনি পড়েছেন ধরা। সেই তিনি হলেন কিশোরগঞ্জ জেলার মইনন্দ ভদ্রাপড়া এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে নূর মোহাম্মদ।

বাড়ির মালিক তাঁকে আটকে রেখেছেন—এমন অভিযোগে গতকাল রবিবার দুপুরে পুলিশ নূর মোহাম্মদকে উদ্ধার করে। এরপর একের পর এক বেরিয়ে আসতে থাকে তাঁর প্রতারণার কাহিনী।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নগরের বোয়ালিয়া থানার ওসি আমান উল্লাহ। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘নূর মোহাম্মদ একজন প্রতারক। সে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে নানা কায়দায় লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এমনকি বাড়ির মালিক নগরের বড়কুঠি এলাকার বাসিন্দা শহীদুল্লাহ সঞ্জু নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকেও টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। পাশাপাশি বাড়ি ভাড়াও দেয়নি। এ কারণে তাকে আটকে রেখে টাকাগুলো উদ্ধারের চেষ্টা করেছিলেন শহীদুল্লাহ সঞ্জু। তবে তিনিও কাজটি ঠিক করেননি। ফলে বিষয়টি নিয়ে এখন উভয় পক্ষের কাছ থেকেই অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ওসি আরো বলেন, ‘নূর মোহাম্মদ এক চাল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে তিন লাখ টাকার চাল নিয়ে প্রতারণা করেছে। চাল ব্যবসায়ী সেজে ওই লোকের কাছ থেকে তিন লাখ টাকার চাল কিনে পরে আড়াই লাখ টাকায় আরেক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। আবার গরু কিনে দেওয়ার নাম করেও কয়েকজনের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন এসব অভিযোগ একের পর এক ব্যক্তি এসে থানায় করে যাচ্ছে। ফলে নূর মোহাম্মদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’


মন্তব্য