kalerkantho


মাইগ্র্যান্ট ৮৮-র সেমিনার

মালয়েশিয়ার স্টুডেন্ট ভিসায় অনেকে পথে বসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



গত বছর মালয়েশিয়ায় স্টুডেন্ট ভিসায় ২৫৪ জন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী পাচারের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে অনেকেই এখনো দেশে আসতে পারেননি। তবে মালয়েশিয়ায় যাওয়ার জন্য প্রত্যেককে তিন লাখ টাকা খরচ করতে হয়েছে। এ জন্য তাঁদের জমি বিক্রি, বাড়ি মর্গেজ, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবদের কাছ থেকে ধারদেনা করে টাকা পরিশোধ করেছেন। পড়ালেখার পাশাপাশি কাজের কথা বলে মালয়েশিয়ায় নেওয়া হলেও তাঁদের বিশ্ববিদ্যালয় দেওয়া হয়নি। এমনকি তাঁদের কাজও দেওয়া হয়নি।

গতকাল সোমবার মাইগ্র্যান্ট-৮৮ নামের একটি বেসরকারি সংগঠন আয়োজিত ‘বাংলাদেশের স্টুডেন্ট ট্রাফিকিং সিন্ডিকেট’ শিরোনামে সেমিনারের মূল প্রবন্ধে এসব তথ্য উপস্থাপন করা হয়। রাজধানীর উত্তরায় সংগঠনটির কার্যালয়ে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়। মালয়েশিয়ান সংগঠন ‘রেইজ’-এর সহায়তায় তারা এ তথ্য প্রকাশ করে।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক মিয়া ইনামুলক হক সিদ্দিকী বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন বিদেশি শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসত। কিন্তু এখন মালয়েশিয়ায় পড়ালেখার নামে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা পাচারের শিকার হচ্ছে, যা খুবই দুঃখজনক। আমার অনুরোধ থাকবে, বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ে যদি কেউ পড়তে যেতে চায় তাহলে সে যেন যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে। যদিও আমাদের কারিকুলামে মাইগ্রেশন বিষয়ে খুব সামান্য অংশ আছে। এটা বাড়াতে হবে। এ ছাড়া শিক্ষকরা যদি এ বিষয়ে ছাত্রদের সঙ্গে আলোচনা করেন তাহলেও অনেকে সচেতন হবে।’


মন্তব্য