kalerkantho


পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া মজুরিসহ ১১ দফা দাবি

কাল থেকে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

খুলনা অফিস   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কর্মবিরতির পাশাপাশি আগামীকাল সোমবার থেকে নতুন আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে খুলনা-যশোর অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা। গত শুক্রবার রাতে এক জনসভায় এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। এ সময় বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের অপসারণ দাবি করে তাঁর কুশপুত্তলিকা দাহ করে শ্রমিকরা।

নতুন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আগামীকাল পাটশিল্প অধ্যুষিত জেলাগুলোতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ, ১৭ জানুয়ারি সকাল ১১টায় লাল পতাকা মিছিল, ২১ জানুয়ারি স্ব স্ব পাটকলে সকাল ১১টায় রাজপথে লাঠি মিছিল, ২৪ জানুয়ারি বাসন হাতে ভুখা মিছিল, ২৫ জানুয়ারি সাংবাদিক, পেশাজীবী সংগঠনগুলোর সঙ্গে মতবিনিময়, ২৬ জানুয়ারি স্ব স্ব শিল্প এলাকায় বিকেল ৩টায় শ্রমিক জনসভা।

শ্রমিক নেতারা বলছেন, এবার দাবি আদায় না করে তাঁরা আর ঘরে ফিরতে চান না। মন্ত্রী-আমলাদের কারণে কাজ করেও তাঁরা শ্রমের মূল্য পাচ্ছেন না। তীব্র শীত ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে তাঁদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ-ননসিবিএ পরিষদের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক ও খুলনা প্লাটিনাম জুটমিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি সরদার মোতাহার উদ্দিন বলেন, ‘বিজেএমসির আওতাধীন সকল মিলে প্রায় ৮৫ হাজার শ্রমিক-কর্মচারী রয়েছে। এ শিল্পের সাথে প্রায় তিন কোটি মানুষ জড়িত। তারা আজ দেশি-বিদেশি চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের শিকার। আমরা এ অবস্থার অবসান চাই।’ বকেয়া মজুরিসহ ১১ দফা দাবিতে গত ২৮ ডিসেম্বর থেকে খুলনার ইস্টার্ন, আলিম, ক্রিসেন্ট, স্টার, প্লাটিনাম, দৌলতপুর, খালিশপুর ও যশোর জেজেআই জুটমিলের শ্রমিকরা আন্দোলন করছে। এর মধ্যে দাবি আদায় না হলে ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের মাধ্যমে আরো নতুন কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।


মন্তব্য