kalerkantho


ফেলানী হত্যা

ভারতের সুপ্রিম কোর্টে রিটের শুনানি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ফেলানী হত্যার বিচার চেয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে করা দুটি রিটের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সে দেশের সুপ্রিম কোর্টের ৯ নম্বর আদালতে ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলামের করা রিটের ওপর এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

বিচারপতি রামায়ণ ও অমিতাভ রায়ের যৌথ বেঞ্চে শুনানির পর রাষ্ট্রপক্ষ হলফনামা দাখিল করার জন্য তিন সপ্তাহ সময় প্রার্থনা করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। এর আগে গত বছর দুই দফা শুনানির তারিখ পেছানো হয়। কুড়িগ্রামের পাবলিক প্রসিকিউটর ও ফেলানী হত্যা মামলায় বাদীপক্ষকে সহায়তাকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফেলানী হত্যার বিচার চেয়ে ফেলানীর বাবার পক্ষে প্রথম রিট করেন ভারতের আইনজীবী অপর্ণা ভাট। পরবর্তী সময়ে ফেলানীর বাবার অনুরোধে ভারতের মানবাধিকার সুরক্ষা মঞ্চ (মাসুম) সে দেশের সুপ্রিম কোর্টে অন্য রিটটি করেন।

২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি বিএসএফ সদস্য অমীয় ঘোষের গুলিতে ফেলানী খাতুন নির্মমভাবে নিহত হয়। এ ঘটনার পর বিএসএফ আদালতে অমীয় ঘোষকে অভিযুক্ত করে অভিযোগ গঠন করা হয়। দুই বছর আট মাস পর ২০১৩ সালের ৬ সেপ্টেম্বর অমীয় ঘোষকে নির্দোষ আখ্যা দিয়ে রায় দেন বিএসএফ আদালত। পরে বিএসএফ মহাপরিচালক রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করলে ২০১৫ সালের ২ জুলাই বিএসএফ আদালত তাঁকে আবারও নির্দোষ বলে রায় দেন।

পরবর্তী সময়ে এ ব্যাপারে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে দুটি রিট করা হয়। আদালত দুটি রিটই শুনানির জন্য গ্রহণ করেন।


মন্তব্য