kalerkantho


কমনওয়েলথের জোরালো ভূমিকা চায় বাংলাদেশ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



উন্নয়নশীল সদস্য রাষ্ট্রগুলোর প্রত্যাশা ও উদ্ভূত আন্তর্জাতিক বাস্তবতার নিরিখে কমনওয়েলথকে জনগণের প্রত্যাশা পূরণে জোরালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী গত বৃহস্পতিবার রাতে নয়াদিল্লিতে রাইসিনা সংলাপে বাংলাদেশের পক্ষে এ আহ্বান জানান।

নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ হাইকমিশন গতকাল শুক্রবার জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী বৃহস্পতিবার রাতে ‘একুশ শতকের জন্য কমনওয়েলথ নিয়ে নতুন করে ভাবনা’ শীর্ষক কমনওয়েলথ ডিনারে প্যানেলে বক্তব্য দেন। আগামী এপ্রিলে যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠেয় ২৫তম কমনওয়েলথ শীর্ষ বৈঠকের প্রাক্কালে বাংলাদেশ এ আহ্বান জানালো।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ব বদলেছে। কমনওয়েলথকে ঘিরে প্রত্যাশাও বদলেছে; কিন্তু কমনওয়েলথের কাজ করার প্রক্রিয়া, অগ্রাধিকার ও আচরণ বদলায়নি।’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ এমন কমনওয়েলথ প্রত্যাশা করে, যা নিয়মিত অভিবাসন, সুশাসন, অবকাঠামো ও যোগাযোগ প্রকল্প এবং নারীর ক্ষমতায়নের মতো উন্নয়নের নিয়ামকগুলোকে উৎসাহিত করবে।’ তিনি বলেন, কমনওয়েলথ অগ্রাধিকারমূলক ও মুক্ত বাণিজ্য ব্যবস্থাকে উৎসাহিত করতে জোর প্রয়াস চালাতে পারে। বাংলাদেশের মতো ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোতে জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমন ও অভিযোজন প্রকল্পগুলোতে সহায়তা, সক্ষমতা সৃষ্টি এবং প্রযুক্তি ও অভিজ্ঞতা স্থানান্তরেও কমনওয়েলথ সহযোগিতা করতে পারে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী কমনওয়েলথকে তার কাঠামো ও কাজের পদ্ধতিতে মৌলিক পরিবর্তন আনার এবং এর অঙ্গসংগঠনগুলোর কর্মকাণ্ড পুনর্বিন্যাসের আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য