kalerkantho


নড়াইলে অরুণিমা পার্কের গার্ডের গুলি ১৩ শ্রমিক গুলিবিদ্ধ

নড়াইল প্রতিনিধি   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নড়াইলে অরুণিমা পার্কের গার্ডের গুলি ১৩ শ্রমিক গুলিবিদ্ধ

নড়াইলের নড়াগাতির পানিপাড়া গ্রামে অরুনিমা ইকো পার্কের মালিকের সঙ্গে পাশের জমির মালিকের বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে ১৩ জন গুলিবিদ্ধসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ ১৩ জনকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে খাশিয়াল গ্রামের মিজানুর রহমান বিশ্বাসের জমিতে বোরো ধানে সেচকাজের জন্য ডিপটিউবওয়েল বসাতে খননকাজ করছিল কয়েকজন শ্রমিক। খননকাজ শেষে শ্রমিকরা রাতের খাবার খাচ্ছিল। এ সময় প্রতিপক্ষ অরুনিমা ইকো পার্কের কয়েকজন গার্ড এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকেন। এতে ১৩ শ্রমিক গুলিবিদ্ধ ও আহত হন সাতজন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন খাশিয়াল গ্রামের নজরুল কাজী (৫০), জাকির মোল্যা (৪০), ছরোয়ার ফকির (৫৫), রহিম মোল্যা (২০), রকিব ফকির (২৫), মামুন মোল্যা (৩০), সাবু বিশ্বাস (২৮), আলতাপ শেখ (৩৫), আকিদুল বিশ্বাস (৩০), মিরাজ মোল্যা (৩০), নাসিম মোল্যা (২৫), মেহেদী শিকদার (২০) ও আরাফাত বিশ্বাস (২৭)।

আহতরা হলেন একই গ্রামের কালু মোল্যা ও কঠাদুরা গ্রামের লিটন শেখ (৩০), খাজা ফকির (২৫), ভাষান গাজী (২৮) ও মহিদুল মোল্যা (২৬)। অরুনিমা পার্কের পক্ষে রবিজুল মোল্যা (২৮)। এ সময় সেচ পাম্প বসানোর যন্ত্রপাতিসহ সেচঘর ভাঙচুর ও মালামাল লুট করা হয়।

অরুনিমা ইকো পার্কের ম্যানেজার শাহাদত হোসেন গুলির কথা স্বীকার করে জানান, রাতে মিজানুর রহমানের লোকজন পার্কে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে এবং জোর করে পার্কের ভেতর প্রবেশের চেষ্টা করলে নিরাপত্তার প্রয়োজনে সিকিউরিটি গার্ডরা গুলি চালান।

জমির মালিক মিজানুর রহমান জানান, খাশিয়াল মৌজায় তাঁর মালিকানার তিন একর জমির মধ্যে এরই মধ্যে অরুনিমা পার্কের মালিক খবির উদ্দিন প্রায় দেড় একর দখল করে নিয়েছেন। ওই জমিতে কাজ করতে গেলেই তাঁরা গুলি ছোড়েন।

স্থানীয় খাশিয়াল গ্রামের বাসিন্দা সিপিবি নড়াইল জেলা কমিটির সভাপতি বরকত উল্লাহ জানান, অরুনিমা পার্কের মালিক যেভাবে মিজানুর রহমানের জমি দখল করতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে, তাতে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের হানাহানি হতে পারে।

নড়াগাতি থানার ওসি বেলায়েত হোসেন জানান, রাতেই তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ বিষয়ে কোনো পক্ষই অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য