kalerkantho


সিটিটিসি কর্মকর্তার ওপর হামলা

অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী সেই তরুণীর বোন ঢাকায় গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সন্দেহভাজন জঙ্গি হিসেবে বাংলাদেশি এক তরুণী গ্রেপ্তার হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ায়। এর জের ধরে তাঁর পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে যান ঢাকার কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) এক কর্মকর্তা। কিন্তু জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়ে এবার ওই তরুণীর বোনের হামলার শিকার হয়েছেন ওই কর্মকর্তা। পরে নারী পুলিশ সদস্যদের সহায়তায় হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর নাম আসমাউল হুসনা ওরফে সুমনা (২২)। গত সোমবার মিরপুরের কাফরুল থেকে তাঁকে গ্রেপ্তারের পর ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে পাঠানো হয়েছে। সিটিটিসি কর্মকর্তারা বলছেন, সুমনা এবং অস্ট্রেলিয়ায় গ্রেপ্তার হওয়া  মোমেনা সোমা দুজনই জঙ্গিবাদের সঙ্গে যুক্ত। বড় বোনের হাত ধরে ছোট বোন সুমনাও জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েন।

এদিকে সোমবার রাতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁরা হলেন নাজমুল ইসলাম শাওন (২৬) ও নুরুজ্জামান লাবু (৩৯)। তাঁদের কাছ থেকে দুটি চাপাতি, জঙ্গিবাদে উৎসাহ জোগায় এমন বই, ৭২৪ মার্কিন ডলারসহ অন্যান্য সামগ্রী উদ্ধার করা

হয়। র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান,  গ্রেপ্তার করা ব্যক্তিরা রাজধানীতে নতুন করে নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে শাওন বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ৪৬তম ব্যাচের ইঞ্জিনিয়ার।

সিটিটিসির উপকমিশনার (ডিসি) মহিবুল ইসলাম খান বলেন, ‘গত ৯ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে সন্দেহভাজন ওই তরুণীর বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে তাঁর বোন আমাদের এক সদস্যকে ছুরিকাঘাতের চেষ্টা চালায়। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। কেন সে এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং কী কারণে তার বোনকে অস্ট্রেলিয়ায় সন্দেহ করা হচ্ছে তা জিজ্ঞাসাবাদে জানা যাবে।’

সিটিটিসি সূত্র জানায়, গত ৯ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার উত্তর মেলবোর্নে এক ব্যক্তিকে ঘুমন্ত অবস্থায় ছুরিকাঘাত করার পর বাংলাদেশি ওই তরুণী শিক্ষার্থী মোমেনা সোমাকে আটক করে অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ। ওই দেশের পুলিশের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে সোমা অস্ট্রেলিয়ান ওই ব্যক্তিকে হত্যার চেষ্টা করেছিল।


মন্তব্য