kalerkantho


হাইকোর্টে তিন শিক্ষক

বুয়েটের তিন ছাত্রীর শাস্তি প্রত্যাহার করবে কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



তিন ছাত্রীর শাস্তি প্রত্যাহার করা হবে বলে হাইকোর্টকে জানিয়েছেন বুয়েটের (বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়) তদন্তকারী কমিটির তিন শিক্ষক। আর বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে হাইকোর্টের কাছ থেকে আরো দুই সপ্তাহ নিয়েছেন তাঁরা। আদালতের বাইরে বিষয়টি নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেওয়ায় আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফের প্রশংসা করেছেন আদালত। আদালত সূত্র জানায়, বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার তিন শিক্ষকের পক্ষে করা সময় আবেদন মঞ্জুর করেন। তিন ছাত্রীর করা পৃথক তিনটি রিট আবেদনের শুনানি চলছে এ আদালতে। তিন শিক্ষকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট এ এফ হাসান আরিফ।

২০১৫ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি বুয়েটের এক ছাত্রের বিরুদ্ধে ইভ টিজিংয়ের অভিযোগ এনেছিলেন তিন ছাত্রী। বুয়েট কর্তৃপক্ষ তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করলেও ছাত্রীরা অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেন। এ অবস্থায় কমিটি তদন্ত শেষে তিন ছাত্রীকে শাস্তির সুপারিশ করে। বুয়েট কর্তৃপক্ষ ছাত্রীদের তিন টার্মের একাডেমিক কার্যক্রম ও আজীবনের জন্য আবাসিক হল থেকে বহিষ্কার করে। এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন তিন ছাত্রী। তাঁরা চাপের মুখে অভিযোগ প্রত্যাহার করেছেন বলে জানান।

আলোচিত এ রিট আবেদনে হাইকোর্ট ছাত্রীদের শাস্তি স্থগিত ও রুল জারি করেন। শুনানি শেষে গত ১৮ জানুয়ারি এ বিষয়ে রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। আদালত মামলার নথি পর্যালোচনা করে দেখেন যে তদন্ত প্রতিবেদনে ইভ টিজিংয়ের অভিযোগের সত্যতা রয়েছে। আদালত এক আদেশে তদন্ত কমিটির তিন শিক্ষককে তলব করেন। প্রতিটি শুনানির দিন তাঁদের হাজির থাকতে হচ্ছে।


মন্তব্য