kalerkantho


বিভাগীয় শহরে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



বিভাগীয় শহরে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

যথাযথ মর্যাদা ও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গতকাল শনিবার বিভাগীয় শহরগুলোতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, আলোচনাসভা, শোভাযাত্রা, শিশু সমাবেশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আবৃত্তি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা।

বরিশাল অফিস জানায়, বরিশালে শুক্রবার রাত ১২টা ১ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে বিভাগীয় প্রশাসন। গতকাল সকালে নগরীর অশ্বিনীকুমার হলের সামনে বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায় বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, জেলা ও মাহানগর আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন।

সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। ১০টায় শিশু একাডেমিতে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। পরে সার্কিট হাউস মিলনায়তনে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান।

বিকেল ৪টায় নগরীর শহীদ সোহেল চত্বরে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের আয়োজনে দলীয় দোয়া-মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এ ছাড়া মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠান এবং মন্দির, গির্জা ও অন্যান্য উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

খুলনা অফিস জানায়, বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্যাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সকালে খুলনা শহীদ হাদিস পার্কে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শিশু সমাবেশ, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশ সৃষ্টি হতো না। যারা বঙ্গবন্ধুকে স্বীকার করে না, তারা বাংলাদেশের অস্তিত্বকে অস্বীকার করে। বঙ্গবন্ধু বাঙালিদের যে দেশ দিয়ে গেছেন, তা আমাদের স্বপ্নের সোনার বাংলা। আজকের শিশু-কিশোর আগামীতে বাংলাদেশের কাণ্ডারি। বর্তমান প্রজন্ম শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে বাংলাদেশ, তার সামগ্রিক উন্নয়নের অংশীদার।’

এ ছাড়া জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠন পৃথক পৃথক কর্মসূচি গ্রহণ করে।



মন্তব্য