kalerkantho


ওবায়দুল কাদের বললেন

আন্দোলনের মুডে নেই জনগণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



 আন্দোলনের মুডে নেই জনগণ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জাতীয় নির্বাচনের আগে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সেমিফাইনালের সঙ্গে তুলনা করে বলেছেন, এখন আর আন্দোলনে কাজ হবে না। দেশের মানুষ আন্দোলনের মুডে নেই। মানুষ এখন সিটি নির্বাচনমুখী।

তিনি জানান, জোটবদ্ধ নির্বাচনে জয়ী হবেন, এমন প্রার্থীকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে। জোটসঙ্গী জাতীয় পার্টিকে আসন দেওয়ার বিষয়ে তিনি প্রকাশ্যে কিছু বলা ভালো নয় বলে মন্তব্য করেন।

গতকাল সোমবার দুপুরে তিনি রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ-বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান দেখতে যান। সেখানে প্রসঙ্গক্রমে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এমন মন্তব্য ও প্রতিক্রিয়া জানান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ এখন পুরোপুরি নির্বাচনের মুডে। দুই সিটি করপোরেশনে নির্বাচন হচ্ছে। দুই বিভাগের ভোটাররা এর সঙ্গে জড়িয়ে গেছে। এরপর আরো পাঁচটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে। সামনে সেমিফাইনাল।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এই ভোটের আমেজের মধ্যে বিএনপির আন্দোলন কোনো কাজে আসবে না।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যন এইচ এম এরশাদ গত রবিবার রংপুরে আগামী জাতীয় নির্বাচনে দলের আসন বাড়ানোর বিষয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন সাংবাদিকরা ওই প্রসঙ্গ টেনে আনলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কে কত আসন পাবে, সেটি বৈঠকে আলাপ-আলোচনা হবে। এসব বিষয় প্রকাশ্যে না বলাই ভালো। জোটের শরিক বলে ইচ্ছামতো আসন চাইবে, তা হতে পারে না। যেখানে যেখানে জাতীয় পার্টির প্রার্থী জয়ী হওয়ার মতো, সেখানে অবশ্যই মনোনয়ন পাবে তারা। জোটের সবার ক্ষেত্রেই জয়ী হওয়ার মতো প্রার্থী ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না।’

আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির সঙ্গে জোট থাকবে কি না—সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জোট হবে কি না, সেটি এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। বসাবসি শুরু হয়ে যাবে। জেতার মতো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। সরকার গঠনের সময় মন্ত্রী দেওয়া না দেওয়া নিয়ে সিদ্ধান্ত দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’



মন্তব্য