kalerkantho


রূপগঞ্জে স্কুলের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের শিমুলিয়ার জনতা উচ্চ বিদ্যালয় নামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় আট কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ নিয়ে উত্তেজনা চলছে। গতকাল বুধবার বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী স্কুলটির পাশে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। তাদের অভিযোগ, স্কুলটির মাঠে গরুর হাট বসিয়ে ইজারার অর্থ তছরুপ করেছেন প্রধান শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি।

সূত্র জানায়, জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে কয়েক যুগ ধরে প্রতি সোমবার গরুর হাট বসানো হচ্ছে। হাটের ইজারার টাকা ব্যয় করা হয় স্কুলের উন্নয়নের কাজে। কিন্তু ১০ বছর স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এ কে এম রেজাউল করিম মাঞ্জু ইজারার টাকা গোপনে সরিয়ে ফেলছেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন ভুয়া বিল-ভাউচার বানিয়ে টাকা আত্মসাতে সহায়তা করে আসছেন। এভাবে ১০ বছরে প্রায় আট কোটি টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

জনতা উচ্চ বিদ্যালয়সংলগ্ন বালুর মাঠে গতকাল বিকেলে একটি প্রতিবাদসভার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দাউদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর মাস্টার। কৃষক লীগের সভাপতি আরাফাত আলীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক, সালাউদ্দিন মেম্বার, শাহজাহান ভূইয়া, অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, আকতারুজ্জামান কুলসুম প্রমুখ। প্রতিবাদকারীরা স্কুলের টাকা আত্মসাৎকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছে। এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।


মন্তব্য