kalerkantho


বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



আজ বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস। জাতিসংঘের অঙ্গ সংগঠন আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের (আইটিইউ) ১৯৩টি সদস্য রাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশেও দিবসটি উদ্যাপিত হচ্ছে। এ বছর দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘সবার জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ইতিবাচক ব্যবহারের সুযোগ সৃষ্টি।’

এবার বাংলাদেশে দিবসটি উদ্যাপিত হচ্ছে দেশের নিজস্ব ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ মহাকাশে উৎক্ষেপণে তথ্য ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থায় যুগান্তকারী অধ্যায়ের সূচনার মধ্যে। 

বাংলাদেশে বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১৫ কোটি এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা আট কোটির বেশি। দেশে বেতার যন্ত্র, টেলিভিশন, স্যাটেলাইট, মোবাইল ফোন, ইন্টারনেট, অনলাইন সেবা, বিমান কিংবা জাহাজে ভ্রমণ সর্বত্রই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহার করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছে। এ প্রযুক্তির বদৌলতে মোবাইল ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে দেশের জনগণ তাদের মৌলিক নাগরিক সেবাগুলো এখন ঘরে বসেই পাচ্ছে। তথ্য ও টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও প্রভূত ক্ষেত্রে সার্বিক উন্নতি সাধিত হয়েছে এবং দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এ দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং আইটিইউর মহাসচিব বাণী দিয়েছেন।

রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে আয়োজিত এ দিবসটির মূল অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী। এ ছাড়া দিবসটি উপলক্ষে জনগণের মধ্যে তথ্য-প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার এবং সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের পক্ষ থেকে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া গতকাল বুধবার সকালে সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যান থেকে সুসজ্জিত কার শোভাযাত্রা ও রোডশো শুরু হয়ে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।


মন্তব্য