kalerkantho


কুয়েটে মাটির নিচ থেকে গ্রেনেড ও গুলি উদ্ধার

খুলনা অফিস   

১৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ক্যাম্পাসে নবনির্মিত আইটি ট্রেনিং সেন্টারের রাস্তা নির্মাণকাজ চলাকালে মাটির নিচ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৮১ রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার পুলিশ এসব গুলি উদ্ধার করে। এ নিয়ে গত দুই দিনে ডুমুরিয়া ও খানজাহান আলী থানার পুলিশ মোট ৮৯০ রাউন্ড গুলি ও একটি গ্রেনেড উদ্ধার করেছে। স্থানীয়দের ধারণা, একাত্তরে হানাদার পাকিস্তানি বাহিনী এসব গুলি ও গ্রেনেড ফেলে যায়।

পুলিশ জানায়, গতকাল সকালে কুয়েট ক্যাম্পাসে খননকালে স্থানীয় লোকজন আরো ৩০ রাউন্ড গুলি দেখে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে খবর দেয়। খানজাহান আলী থানার পুলিশ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসের পশ্চিম পাশে নবনির্মিত আইটি ট্রেনিং সেন্টারের রাস্তা নির্মাণকাজে এক্সকাভেটর মেশিন দিয়ে তোলা মাটি খুঁড়ে আরো ৮১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। এর আগে সোমবার ডুমুরিয়া উপজেলার থুকড়া গ্রামের দিনমুজুর সোহেল রানা ৮০৩ রাউন্ড গুলি ডুমুরিয়া বাজারের একটি ভাঙ্গারির দোকানে বিক্রির সময় পুলিশের হাতে আটক হন।

সোহেল পুলিশকে জানান, সম্প্রতি আইটি ট্রেনিং সেন্টারের রাস্তার মাটির কাজ করার সময় গুলিগুলো পেয়ে গোপনে তিনি সেগুলো বিক্রি করতে এসেছিলেন। তাঁর দেয়া তথ্য মতে, সোমবার পুলিশ উল্লিখিত স্থানে তল্লাশি চালিয়ে মাটির নিচে পরিত্যক্ত অবস্থায় সাড়ে সাত শ গ্রাম ওজনের একটি গ্রেনেড ও ছয় রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার করে।

তবে খানজাহান আলী থানার ওসি লিয়াকত আলী বলেন, উদ্ধারকৃত গ্রেনেড ও গুলি মুক্তিযুদ্ধকালীন নয়, আরো পরের। কারণ গুলিগুলো চীনে তৈরি। পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে এ মুহূর্তে কিছু বলা যাচ্ছে না।


মন্তব্য