kalerkantho


আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

তৃণমূল নেতাদের নির্বাচনী প্রস্তুতির নির্দেশনা দেবেন শেখ হাসিনা

উদ্বোধন হবে নতুন কার্যালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



তৃণমূল নেতাদের নির্বাচনী প্রস্তুতির নির্দেশনা দেবেন শেখ হাসিনা

ফাইল ছবি

মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানের গর্বিত ঐতিহ্যের রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ১৯৪৯ সালে আজকের এই দিনে ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ’ নামে দলটির যাত্রা শুরু হয়। নবগঠিত পাকিস্তান রাষ্ট্রে দলটি শুরু থেকেই পূর্ব পাকিস্তানের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়। ১৯৫৫ সালে ধর্ম নিরপেক্ষতার নীতি গ্রহণ করে দলের নাম থেকে মুসলিম শব্দটি বাদ দেওয়া হয়। দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়। সাড়ে ৯ বছর ধরে টানা রাষ্ট্রক্ষমতায় রয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট।

৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে আওয়ামী লীগ। আজ রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে নবনির্মিত আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের ১০ তলা ভবন উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে তিনি সারা দেশের জেলা, মহানগর, উপজেলা পর্যায়ের চার হাজারের বেশি ও ইউনিয়ন পর্যায়ের প্রায় ১১ হাজার নেতার সঙ্গে বৈঠক করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আজ সকাল ১১টায় এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে জেলা, মহানগর, উপজেলা পর্যায়ের নেতারা অংশ নেবেন। পরে আরেকটি সভায় ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতারা অংশ নেবেন।

আওয়ামী লীগের সূত্রগুলো জানিয়েছে, আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিজয়ী করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার তাগিদ দিতেই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে শেখ হাসিনা তৃণমূলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলার উদ্যোগ নিয়েছেন। এ উপলক্ষে গতকালই সারা দেশ থেকে কয়েক হাজার নেতাকর্মী ঢাকায় উপস্থিত হয়েছেন। দীর্ঘদিন পর আওয়ামী লীগ সভাপতির সঙ্গে বৈঠকের সুযোগ পেয়ে তৃণমূলের নেতাদের মধ্যে উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘জাতীয় নির্বাচন সামনে। সিটি করপোরেশন নির্বাচনও রয়েছে। নির্বাচন সামনে রেখে চ্যালেঞ্জ আছে। ষড়যন্ত্র আছে। নির্বাচনের বিরুদ্ধে চক্রান্ত আছে। দেশের রাজনীতিকে অস্থিতিশীল করতে তৎপরতা আছে। এসব মোকাবেলায় নেতাদের করণীয় বিষয়ে দলের বিশেষ বর্ধিত সভায় দিকনির্দেশনা দেবেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা।’ গতকাল সকালে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের জানান, বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের স্থায়ী কার্যালয়ের ফলক উন্মোচন করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। কার্যালয়টি ঘুরে দেখার পর সকাল ১১টায় শেখ হাসিনা গণভবনে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের চার হাজার ১৫৭ জন নেতাকে নিয়ে একটি বর্ধিত সভা করবেন। এরপর ইউনিয়ন পর্যায়ের ১১ হাজার নেতাকে নিয়ে আরেকটি সভা অনুষ্ঠিত হবে।

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ শাসনের অবসান ও ভারতবর্ষ ভেঙে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর জননেতা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী, শামসুল হক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হয়। জন্মলগ্নে দলটির নাম ছিল ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ’। পরে ১৯৫৫ সালে দলটির কাউন্সিলে ধর্মনিরপেক্ষ নীতি গ্রহণের মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল হিসেবে ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ’ নামকরণ করা হয়।

প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এ দেশের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক বাঁকে আওয়ামী লীগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ধীরে ধীরে এ দেশের মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক হয়ে ওঠে আওয়ামী লীগ। দলটির নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ দেশের মানুষের সবচেয়ে প্রিয় নেতা হয়ে ওঠেন। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই এ দেশের মানুষ ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে জয়ী হওয়ার মধ্য দিয়ে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত হয়। স্বাধীন বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের পথচলা মসৃণ ছিল না। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনের আগেই ১৯৭৫ সালে কিছু বিপত্গামী সেনা সদস্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যা করে। বিদেশে অবস্থান করায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।

১৯৮১ সালে বিদেশে অবস্থানরত শেখ হাসিনাকে আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচন করা হয়। বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে দিশেহারা আওয়ামী লীগকে শেখ হাসিনা দৃঢ় হাতে নতুন ভিত্তির ওপর দাঁড় করান। শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের কারণেই ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ আবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসে। পরের মেয়াদে ক্ষমতায় যেতে না পারলেও ২০০৮ সালের নির্বাচনে আবারও আওয়ামী লীগ জয়ী হয়। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় রয়েছে আওয়ামী লীগ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আওয়ামী লীগের কর্মসূচি : যথাযথ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপনে আওয়ামী লীগ আজ বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৯টায় ধানমণ্ডিস্থ বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন, সকাল ১০টায় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং সংগঠনের নবনির্মিত কার্যালয় ভবন উদ্বোধন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতিতে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করার জন্য আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সব জেলা, উপজেলাসহ সব স্তরের নেতাকর্মী, সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।



মন্তব্য