kalerkantho


চেয়ারম্যানের স্ত্রীর মর্যাদা চাইলেন খেলেন মার

আত্মহননের চেষ্টা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



স্ত্রীর মর্যাদা চাইতে গিয়ে ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহ আলম ও তাঁর স্ত্রীর হাতে নির্যাতিত হয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের এক নেত্রী (২৫)। স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে। গতকাল বুধবার দুপুরে ঝালকাঠি জেলা পরিষদ কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা যায়, ছাত্রলীগের ওই নেত্রী জেলা পরিষদে কাজ করেন। এ সুবাদে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলমের সঙ্গে ওই নেত্রীর বিশেষ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওই নেত্রীর অভিযোগ, শাহ আলম তিন বছর ধরে তাঁকে স্ত্রীর মতো ব্যবহার করলেও স্ত্রীর মর্যাদা দিচ্ছিলেন না। বুধবার দুপুরে তিনি চেয়ারম্যান শাহ আলমের কক্ষে অবস্থান নিয়ে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকেন। খবর পেয়ে চেয়ারম্যানের স্ত্রী জেলা মহিলা পরিষদের সভানেত্রী শাহানা আলম সেখানে উপস্থিত হন। একপর্যায়ে ওই নেত্রীকে চড়-থাপ্পড় মারেন শাহানা আলম। পরে শাহ আলম ও শাহানা আলম গাড়িতে উঠে জেলা পরিষদ ত্যাগ করতে চাইলে ওই নেত্রী বাধা দেন। পরে সেখানে তাঁকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। পরে তিনি জেলা পরিষদের দ্বিতীয় তলার ছাদে উঠে লাফ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। স্থানীয় কিছু যুবক ও কয়েকজন যুবলীগ নেতা এ সময় তাঁকে রক্ষা করেন। একপর্যায়ে তিনি জ্ঞান হারান। তাঁকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সদর হাসপাতালের কেবিনে চিকিৎসাধীন ওই ছাত্রলীগ নেত্রী বলেন, ‘শাহ আলমের স্ত্রীর মর্যাদা পেতে প্রয়োজনে আইনের আশ্রয় নেব।’



মন্তব্য