kalerkantho


প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাশেদের মা ক্ষমা চাইলেন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



কোটা সংস্কার আন্দোলনের গ্রেপ্তারকৃত নেতা রাশেদ খানের মা সালেহা বেগম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাঁর সন্তানের মুক্তি কামনা করেছেন। গতকাল বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে সালেহা বেগম বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একজন মা, আমিও একজন মা। উনার কাছে আমি আমার সন্তানকে ভিক্ষা চাচ্ছি। তাকে আপনি ক্ষমা করে দেন। আমি তাকে ঢাকায় রাখব না। ওকে বাড়ি নিয়ে যাব।’

সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাশেদ খানের ছোট বোন সোনিয়া আক্তার এবং তাঁর স্ত্রী রাবেয়া আলো। রাশেদের মা বলেন, ‘আমার সঙ্গে আমার সন্তানের অনেক দিন দেখা নেই। প্রতিদিন রাস্তায় রাস্তায় ঘুরি, ডিবি অফিসের সামনে বসে থাকি। তবে ভাগ্যক্রমে গত মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ডিবি অফিসে রাশেদের সঙ্গে দেখা হয়ে গিয়েছিল। দেখে তাকে চেনা যাচ্ছে না। ওর শরীর ভালো নেই। সে আমাকে দেখেই বলেছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করো, রিমান্ড যেন তুলে নেয়।’

তিনি জানান, হাঁটতে হাঁটতে এক মিনিটের মতো কথা হয়েছিল রাশেদের সঙ্গে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে ভিক্ষা চাচ্ছি। আপনি দয়া করে আমার সন্তানকে ক্ষমা করে দেন।’ তিনি দাবি করেন, রাশেদ সরকার বা দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিল না। এমনকি কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত না। ও শুধু চাকরির জন্য দাবি করেছিল, কোটা কমানোর জন্য আন্দোলন করছিল।

রাশেদের বোন সোনিয়া আক্তার বলেন, ‘আপনারা আমাদের গ্রামে খোঁজ নেন, কেউ বলতে পারবে না আমার ভাই এবং আমরা কেউ জামায়াত শিবিরের সঙ্গে জড়িত।’ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে রাশেদের স্ত্রী রাবেয়া আলো বলেন, ‘আমরা মানবাধিকার কমিশনে গিয়েছিলাম সাহায্যের জন্য। তারা জানিয়েছে অনেকগুলো মামলা তার বিরুদ্ধে হয়েছে, সময় লাগবে।’



মন্তব্য