kalerkantho


না.গঞ্জে বিএনপির ১৬ নেতার নামে মামলা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় গত সোমবার বিকেলে বিএনপির ১৬ নেতার নামে মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় অনুমতি ছাড়া মিছিল, সরকারি কাজে বাধা, পুলিশকে আহত করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

আলামত হিসেবে দুটি ভাঙা জর্দার কৌটা ও স্কচটেপ জব্দ দেখানো হয়েছে।

মামলায় আসামিরা হলেন সোমবার ঘটনার পর আটক মোশাররফ হোসেন, শাহীন আহমেদ, আনোয়ার, রাজু আহমেদ, কামাল, জিয়াউর রহমান, মাহমুদুল হাসান লিংকন ও কাঞ্চন। আরেক আসামি জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক আকরাম প্রধানকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিরা হলেন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান, আলী আহাম্মদ রতন, জেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক উজ্জল হোসেন, শহর বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক আকতার হোসেন খোকন শাহ, নূর মোহাম্মদ, সোহাগ ও ইকবাল হোসেন। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন জানান, সোমবার বিকেলে মামলায় ১৬ জনের নামসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো অর্ধশতজনকে আসামি করা হয়েছে। এরা বিনা অনুমতিতে মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খানের নেতৃত্বে মিছিল করে। বিনা অনুমতিতে মিছিল করে জনস্বার্থে ব্যাঘাত করা, যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা, রিকশা ভাঙচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও পুলিশের ওপর হামলা করে।

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেন, সোমবার বিকেলে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ ও খালেদা জিয়ার কারামুক্তি উপলক্ষে শহরের মণ্ডলপাড়ায় বিএনপি কার্যালয়ের আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। মহানগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের ব্যানারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা সাখাওয়াত হোসেন খানের।

ওই সভায় যোগ দিতে মৎসজীবী দলের নেতা জিয়াসহ অন্যরা একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি মণ্ডলপাড়ায় আসার পর পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পুলিশ আটজনকে আটক করে নিয়ে যায়। মামলার তদন্তকারী পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃতদের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ’

সদর মডেল থানার ওসি শাহীন শাহ পারভেজ জানান, আলোচনার নামে শহরে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার সময় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যারা পলাতক রয়েছে, তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য