kalerkantho


ছাত্রলীগ নেতাকে হত্যাচেষ্টা

সোনারগাঁয় মহাসড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় ছাত্রলীগ নেতা ও তাঁর বাবাকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান রাশেদের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য দেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাহমুদ, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ আহমেদসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

বক্তারা বলেন, গত ৭ সেপ্টেম্বর উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন ও তাঁর বাবা জসিম উদ্দীনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় একই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ইকবাল হোসেন, জুয়েল মিয়া, ওসমান মিয়া, লিটন হোসেন, বাবুল হোসেন ও তাদের সহযোগীরা। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আসামিদের গ্রেপ্তার করা না হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। সমাবেশ শেষে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন তাঁরা।

কলেজছাত্রকে পিটিয়ে আহত

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার কদমরসুল ডিগ্রি কলেজের স্নাতক (সম্মান) শেষ বর্ষের ছাত্র ইব্রাহিম হোসেনকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সোনারগাঁ পৌরসভার গোয়ালদী গ্রামে।

এ বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, সোনারগাঁর টিপুরদী গ্রামের হাসমত আলীর সঙ্গে ইলিয়াসদী গ্রামের আক্তার হোসেনের বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গতকাল দুপুরে আক্তার হোসেনের ছেলে ইব্রাহিম হোসেনের ওপর হামলা করা হয়েছে।

তিনি কলেজ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে গোয়ালদীতে হাসমত আলীর আত্মীয় জহিরুল ইসলাম, লিটন মিয়া, ওসমান মিয়া, নাঈম মিয়াসহ আট-দশজন সন্ত্রাসী দেশি অস্ত্র নিয়ে পেটায়। মারাত্মক আহত অবস্থায় ইব্রাহিমকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে এলাকাবাসী।

ছাত্রের বাবা আক্তার হোসেন বলেন, ‘পূর্বশত্রুতার জের ধরে হাসমত আলী ও তার লোকজন আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিটিয়ে আহত করেছে। ’

হাসমত আলী বলেন, ‘আমি উক্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িত নই। তবে আমাদের সঙ্গে আক্তার হোসেনের পারিবারিক বিরোধ চলছে। ’

সোনারগাঁ থানার ওসি মোর্শেদ আলম জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য