kalerkantho


নারায়ণগঞ্জে কলেজছাত্র শুভ্র হত্যা

মোবাইল ফোনসেট ও ৬০০ টাকার জন্য খুন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জে সরকারি তোলারাম কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শাহরিয়াজ মাহমুদ শুভ্রকে হত্যার ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেপ্তারকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে, মোবাইল ফোনসেট ও ৬০০ টাকা ছিনতাই করে শুভ্রকে গাড়ি থেকে পানিতে ফেলে দেওয়া হয়।

আর হাত বাঁধা থাকায় শুভ্র পানিতে তলিয়ে যায়। গতকাল বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর এলাকার জেলা গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের পক্ষ থেকে এসব কথা জানানো হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো কুমিল্লার তিতাস উপজেলার মঙ্গলকান্দি এলাকার বেলায়েত হোসেনের ছেলে অটোরিকশাচালক মো. ইয়ামিন ওরফে আল আমিন, কুমিল্লার দেবীদ্বারের উজালীকান্দি এলাকার কেসমত আলীর ছেলে মো. জালাল, কুমিল্লার চান্দিনার হোসেনপুর এলাকার আলম মিয়ার ছেলে জুয়েল ও সিদ্ধিরগঞ্জের দক্ষিণ নিমাই কাশারী এলাকার বাবুল মিয়া খানের ছেলে মো. রবিন। বিকেলে জুয়েল ও রবিন অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অশোক কুমার দত্তের আদালতে দোষ স্বীকার করেছেন। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ইয়ামিন ও জালালের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।

পুলিশের উপপরিদর্শক মফিজুল ইসলাম জানান, নিহত শাহরিয়াজ শুভ্রর মোবাইল ফোনের কললিস্টের সূত্রধরে মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে যাত্রাবাড়ী থানার শনির আখড়া থেকে ওই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি অটোরিকশা, দুটি চাকু, শুভ্রর মোবাইল ফোনসহ আসামিদের চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। গত ৮ সেপ্টেম্বর সকালে শুভ্র ঢাকা যাওয়ার জন্য শিবু মার্কেট এলাকা থেকে ১০ টাকা ভাড়ায় অটোরিকশায় ওঠে। অটোরিকশাটি ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত হতো।

চালক ও যাত্রীবেশী তিনজন তার চোখ ও হাত বেঁধে ফেলে। পরে তার কাছ থেকে ৬০০ টাকা ও একটি মোবাইল ফোনসেট রেখে তাকে ডোবায় ফেলে দেয়।


মন্তব্য