kalerkantho


মাদক সেবনে বাধা

রূপগঞ্জে স্বামী স্ত্রীকে মারধর ভাঙচুর

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় বাড়িঘরে হামলাসহ স্বামী-স্ত্রীকে মারধর করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে উপজেলার পূর্বাচল ১০ নম্বর সেক্টর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত আজমের ছেলে শিশির জানান, তাঁর বাবা আজম খান পূর্বাচল এলাকার রাজউকের অফিসে নিরাপত্তা প্রহরীর কাজ করেন। উপজেলার হারারবাড়ী এলাকার কয়েকজন প্রতিদিন সেখানে চোলাই মদ, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক সেবন করে আসছে। কয়েক দিন ধরেই আজম ভুঁইয়া মাদক সেবন করতে তাদের নিষেধ করে আসছেন। রবিবারও তাদের ওই কাজে নিষেধ করলে মাসুদ রানা ভুঁইয়া, বেনুজুয়াল ভুঁইয়া, রুবেলসহ কয়েকজন বাড়িতে গিয়ে তাঁর বাবা আজম খানকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। এ সময় প্রতিবাদ করলে মাদকসেবীরা তাঁর মা-বাবাকে মারধর করে। এ সময় তাঁদের ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে অর্ধলক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করা হয়। তাঁদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে মাদকসেবীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

গৃহবধূসহ তিনজনকে মারধর

রূপগঞ্জে টাকা না পেয়ে গৃহবধূসহ তাঁর পরিবারের তিনজনকে মারধর করেছে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। গতকাল রবিবার দুপুরে উপজেলার কান্দাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার শিকার উপজেলার গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের বউবাজার এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার মেয়ে গৃহবধূ আশা বেগম জানান, তাঁর সঙ্গে দুই বছর আগে উপজেলার কান্দাপাড়া এলাকার আবু সিদ্দিকের ছেলে আশরাফের বিয়ে হয়। বিয়েতে নগদ এক লাখ টাকাসহ তিন ভরি স্বর্ণালংকার দেওয়া হয়। তাঁদের সংসারে ৯ মাসের একটি মেয়েসন্তান রয়েছে।

আশা বেগম আরো জানান, কিছুদিন ধরেই স্বামী তাঁকে বাবার বাড়ি থেকে তিন লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল। ওই টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে রবিবার সকালে শাশুড়ি আকলিমা, শ্বশুর আবু সিদ্দিক ও তাঁর স্বামী তাঁকে বেদম মারধর করে। এ সময় তাঁর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

 


মন্তব্য