kalerkantho


ময়মনসিংহে শিক্ষকদের সংবাদ সম্মেলন

অনুমতিহীন স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ   

৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ময়মনসিংহে সরকারি অনুমতিহীন মাধ্যমিক স্কুলগুলোর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সদর উপজেলার এমপিওভুক্ত ও সরকারি অনুমতিপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকরা। গত বুধবার ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। এ সময় সদর উপজেলার বিভিন্ন স্কুলের ২৮ জন প্রধান শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ময়মনসিংহ জেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘ময়মনসিংহ শহর এখন শিক্ষানগরী হিসেবে পরিচিত। সদর উপজেলায় চারটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৬১টি এমপিওভুক্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং আটটি সরকারি অনুমোদনপ্রাপ্ত বিদ্যালয় রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষকরা যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে নিয়োগ পেয়েছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দেশে ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে সম্প্রতি ব্যাপক হারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালুর প্রবণতা তৈরি হয়েছে। নিয়মবহির্ভূতভাবে গড়ে উঠছে অবৈধ নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ময়মনসিংহ সদরে আনুমানিক ৭০টি সরকারি অনুমতিবিহীন প্রাইভেট মাধ্যমিক বিদ্যালয় এরই মধ্যে বেপরোয়া বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করেছে। এসব প্রতিষ্ঠানের কোনোটিরই নিজস্ব জমি ও ক্যাম্পাস নেই, সরকারি বিধি অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ নেই। কি করে এসব প্রতিষ্ঠান কার্যক্রম পরিচালনা করে তা বোধগম্য নয়। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে শিক্ষা বোর্ডের কোনো অনুমতি নেই। এসব ক্ষেত্রে চলছে শুভঙ্করের ফাঁকি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তারা এসব প্রতিষ্ঠান বন্ধের কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছেন না বলেই আজ এমন অবৈধ প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার প্রতিযোগিতা চলছে।

সাংবাদিক সম্মেলনে আরো বলা হয়, কিছুু সংখ্যক অসাধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের যোগসাজশ ও আঁতাতের মাধ্যমে এসব অবৈধ প্রতিষ্ঠান টিকে আছে। অন্যদিকে এসব প্রতিষ্ঠানের পাঠদানের অনুমতি না থাকার পর কিভাবে এসব প্রতিষ্ঠান সরকারি বই পেয়ে থাকে—তাও বোধগম্য নয়।

শিক্ষক নেতারা বলেন, তাঁরা বিষয়টি নিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলছেন। মানসম্মত শিক্ষার ব্যাপারে তাঁরা দ্রুত ময়মনসিংহ শহরে একটি মতবিনিময়সভার আয়োজন করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন শহরের প্রিমিয়ার আইডিয়াল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. চান মিয়া, মাইজবাড়ী আব্দুল খালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ কে এম জহিরুল হক, মুসলিম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক জালাল উদ্দিন, আমলীতলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জি এম এম মোফাচ্ছেরুর রহমান, নাসিরাবাদ কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন, ঘাঘরা বাড়েরা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাফর আহম্মেদ চৌধুরী প্রমুখ।

 


মন্তব্য