kalerkantho


সোনারগাঁয় মোহাম্মদ আলী হত্যাকাণ্ড

তিন দিন পর থানায় মামলা

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় মোহাম্মদ আলী হত্যাকাণ্ডের তিন দিন পর থানায় মামলা হয়েছে। মোহাম্মদ আলীর মা শিউলী বেগম গতকাল শনিবার দুপুরে ২৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞতাপরিচয় ১০-১৫ জনের বিরদ্ধে মামলাটি করেন। এতে পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোশারফ হোসেনকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

এর আগে ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোশারফসহ তাঁর সহযোগী জসিম মিয়া, হামিদ মিয়া, হাবিবুর রহমান, শহিদুল্লাহ ও শামিম সরকারকে আটক করে পুলিশ।

মোহাম্মদ আলী পশ্চিম কান্দারগাঁওয়ের আরজান আলীর ছেলে। পরিবারের দাবি, পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে ২০১২ সালের ১২ জুলাই রিপন হত্যা, ২০১৪ সালে ১৫ জুন চাঁদাবাজি, একই বছরের ১৭ জুন সাধন হত্যা, ২০১৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বজলুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা, একই বছরের ১১ মে গোলজার হত্যা ও ২০১৭ সালে ১৭ ফেব্রুয়ারি নৌযানে চাঁদাবাজি মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওবায়েদুল হক জানান, মোহাম্মদ আলীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু শামীম মিয়া তাকে (মোহাম্মদ আলীকে) বাড়ি থেকে ডেকে নেয়। এরপর হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়।


মন্তব্য