kalerkantho


সিদ্ধিরগঞ্জে জোড়া খুন

নেপথ্যে মাদক সেবন ও নারী নিয়ে ফুর্তিতে বাধা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জে একটি বসতবাড়ি থেকে নানি ও নাতি হত্যার ঘটনার দায় স্বীকার করেছে এক অটোরিকশাচালক। গতকাল রবিবার বিকেলে আক্তার হোসেন (৩৫) নামের ওই অটোরিকশাচালক আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। মাদক সেবন ও নারী নিয়ে ফুর্তিতে বাধা দেওয়ার কারণেই দুজনকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডে তার সঙ্গে ছিল আরো দুজন। গতকাল বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসানের আদালত আক্তার হোসেনের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করে। এর আগে শনিবার রাতে তাকে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে মিজমিজি এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলাম জানান, আক্তার হোসেন আদালতে স্বীকার করেছে, সেসহ আরো কয়েকজন ওই বাড়ির একটি কক্ষে প্রায়ই আড্ডা দিত। সেখানে তারা মাদক সেবন ও পতিতা নিয়ে ফুর্তি করত। ৩০ ডিসেম্বর রাতে বিষয়টি নিয়ে বাধা দেন পারভীন আক্তার। তাই তাঁকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। পরে হত্যার ঘটনা দেখে ফেলায় তাঁর নাতি মেহেদী হাসানকেও শ্বাসরোধে হত্যার পর ঘরের বাইরে তালা দিয়ে আটকে রাখা হয়। এ কিলিং মিশনে তার সঙ্গে আরো দুজন ছিল। তিনি আরো জানান, বাকি দুজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। হত্যাকাণ্ডের পর মেহেদী হাসানের বাবা নবী আউয়ালকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়েছিল। 

নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী এলাকার মেঠোপথ ধরে একটি বাড়ি। ওপরে টিন, বাইরে পাকা দেয়ালের ওই বাড়িটির তিনটি কক্ষ। আশপাশের বাড়িঘরগুলোও একটু দূরে। সে কারণে এ বাড়ির সঙ্গে প্রতিবেশীদের দূরত্ব একটু বেশিই। তা ছাড়া বাড়িতে লোকজনের সংখ্যাও কম থাকায় প্রতিবেশীদের খুব একটা নজর ছিল না এ বাড়িতে। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার বাড়ি থেকে যখন পচা দুর্গন্ধ বেরিয়ে আসতে থাকে তখনই ভিড় জমে বাড়িতে। পরে পুলিশ একটি কক্ষের তালা ভেঙে মেঝেতে পড়ে থাকা অবস্থায় নানি ও নাতির লাশ উদ্ধার করে। বৃহস্পতিবার দুজনের লাশ উদ্ধারের পর পুরো ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনে ব্যস্ত হয়ে পড়ে পুলিশ। তবে মামলা করতে নিহত পরিবারের কাউকে না পাওয়ায় পুলিশের একজন এসআই বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন।

নিহতরা হলো কুমিল্লার মৃত আব্দুর রহিমের স্ত্রী পারভীন আক্তার (৫০) ও তাঁর নাতি মেহেদী হাসান (৯)। তারা সিদ্ধিরগঞ্জে পাইনাদি মধ্যপাড়া এলাকার ইতালিপ্রবাসী তোফাজ্জল হোসেনের বাড়িতে দুই মাস হলো ভাড়াটিয়া হয়েছিলেন।


মন্তব্য