kalerkantho


ফতুল্লায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ চেয়ে বিক্ষোভ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ফতুল্লায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ চেয়ে বিক্ষোভ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ভর্তি বাণিজ্যের প্রতিবাদে এবং দাপা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে গতকাল বিক্ষোভ করেন অভিভাবকরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ভর্তি বাণিজ্যসহ দরিদ্র, অসহায় ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে ফতুল্লার দাপা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। তাঁর অপসারণ দাবিতে গতকাল রবিবার সকালে ও বিকেলে স্কুলের গেটের সামনে বিক্ষোভ করেছেন অভিভাবকরা। 

তবে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আহসান হাবিব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রাজমিস্ত্রি শাহীন জানান, তাঁর বড় মেয়ে সপ্তম ও ছোট মেয়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। দুজনকে ভর্তি করাতে তিন হাজার ৮০০ টাকা দাবি করেন প্রধান শিক্ষক। কিছু টাকা কমিয়ে নিতে বললে তিনি ক্ষিপ্ত হন বলে শাহীনের অভিযোগ।

গৃহবধূ রহিমা বেগম জানান, তাঁর স্বামী দিনমজুরি করেন। গরুর দুধ বিক্রি করে সংসার চলে। মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী। মেয়েকে ভর্তি করাতে প্রধান শিক্ষক চার হাজার ২০০ টাকা দাবি করেন। এর প্রতিবাদ করায় প্রধান শিক্ষক তাঁকে ধমক দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেন বলে তাঁর অভিযোগ। টাকা সংগ্রহ করতে না পারায় মেয়েকে ভর্তিও করাতে পারেননি। আরেক গৃহবধূ রওশন জানান, তাঁর স্বামী ডাক বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। একমাত্র প্রতিবন্ধী ছেলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। তার ভর্তি ফি হিসেবে দুই হাজার ২০০ টাকা নিয়েছেন প্রধান শিক্ষক।

অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হাবিব বলেন, ‘স্কুলে ৮৬৭ জন শিক্ষার্থী আছে। এর মধ্যে ৩০৫ জন ফ্রি পড়ে। এতে স্কুলের শিক্ষকরা তিন মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না।’


মন্তব্য