kalerkantho


গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণ

কালিয়াকৈরে বোনের বাসায় এসে লাশ হলেন খাদিজা

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

১১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বসতঘরে গ্যাসের আগুনে পুড়ে মা-ছেলেসহ দগ্ধ তিনজনের মধ্যে খাদিজা আক্তারের (৩২) মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল দুই দিন আগে। চিকিত্সাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার সকালে তিনি মারা যান। বড় বোনের বাসায় বেড়াতে এসে ঘরের ভেতর গ্যাসের আগুনে পুড়ে লাশ হয়ে নিজ বাড়িতে ফিরতে হলো তাঁকে। নিহত খাদিজা আক্তার শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার মলমতারা এলাকার বেলাল মুন্সীর স্ত্রী।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গোসাইরহাট উপজেলার মলমতারা এলাকার বেলাল মুন্সীর সঙ্গে প্রায় পাঁচ বছর আগে খাদিজার বিয়ে হয়। খাদিজা একই উপজেলার বড়কালিনগর এলাকার আলতাফ হোসেনের মেয়ে। খাদিজার বড় বোন কালিয়াকৈরে একটি গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করেন এবং কালিয়াকৈর সদরের পূর্বচান্দরা বোর্ডমিল এলাকায় জমি কিনে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। গত রবিবার বড় বোন নুর নাহারের বাসায় বেড়াতে আসেন খাদিজা। পরের দিন সোমবার সকালে নুর নাহার ঘুম থেকে উঠে গ্যাসের চুলা জ্বালাতে গেলে বিস্ফোরণে দগ্ধ হন নুর নাহার, তাঁর ছেলে সাব্বির ও ছোট বোন খাদিজা। পরে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে সফিপুর আনসার ভিডিপি হাসপাতালে এবং পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

নিহত খাদিজার ভগ্নিপতি ও দগ্ধ নুর নাহারের স্বামী বাচ্চু হাওলাদার শ্যালিকার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, তাঁর দগ্ধ স্ত্রী নুর নাহার ও ছেলে সাব্বির হোসেনের অবস্থাও খুব একটা ভালো নয়। তারাও একই হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে।


মন্তব্য