kalerkantho


আজমিরীগঞ্জ

যুবলীগ নেতার হাতে লাঞ্ছিত ইউএনও

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার উন্নয়ন মেলায় দলীয় ব্যানার অপসারণ করায় গতকাল শনিবার বিকেলে যুবলীগ নেতার হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পুলক কান্তি চক্রবর্তী। এ ঘটনায় মেলার কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজমিরীগঞ্জে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার বিভিন্ন স্থানে বড় বড় কয়েকটি ব্যানার লাগান উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মমিনুর রহমান সজীব। ব্যানারে তিনি স্থানীয় এমপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান, জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ছবি ব্যবহার করেন। কিন্তু পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তি বজায় রাখতে মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সব দলীয় ব্যানার অপসারণ করার নির্দেশ দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কান্তি চক্রবর্তী।

শনিবার বিকেলে তিনি মেলা পরিদর্শনে গেলে সেখানে উপস্থিত হয়ে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মমিনুর রহমান সজীবের নেতৃত্বে যুবলীগের নেতাকর্মীরা ইউএনওকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে, মারতে উদ্যত হয় এবং বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়। এ ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাময়িকভাবে মেলার কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কান্তি চক্রবর্তী জানান, মেলার ভেতরে রাজনৈতিক কোনো ব্যানার টানানোর নিয়ম নেই। তাই তিনি ব্যানারগুলো অপসারণ করেছেন। কিন্তু দোষ করার পরও সংশ্লিষ্টরা তাঁর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছে, নানা ধরনের হুমকি দিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান ইউএনও।

উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মমিনুর রহমান সজীব বলেন, ‘আমি মেলার বাইরে ব্যানার লাগিয়েছিলাম। এটি দলের কোনো ব্যানার নয়, সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে ব্যানারগুলো তৈরি করা হয়েছিল।’ জেলা প্রশাসক মনীষ চাকমা জানান, স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।



মন্তব্য