kalerkantho


বেলকুচিতে চলছে পরিবহন ধর্মঘট

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বেলকুচিতে চলছে পরিবহন ধর্মঘট

দুই নেতাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা সদরের সড়কে বিভিন্ন গাড়ি ভাঙচুর ও বাসে আগুন দেয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছবিটি বৃহস্পতিবার বিকেলে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

বেলকুচি উপজেলায় বাসে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনায় সিরাজগঞ্জ বাস, মিনিবাস ও কোচ মালিক সমিতি অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে শুরু হওয়া এই ধর্মঘটে বেলকুচি-সিরাজগঞ্জ সড়কের ৩০ কিলোমিটার রাস্তা অচল হয়ে পড়ে। ফলে যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পৌর মেয়রের করা মামলায় উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সাজ্জাদুল হক রেজা ও উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম ওমর ফারুক সরকারকে ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তারের পর তাঁদের সমর্থকরা রাস্তায় নেমে সিএনজি অটোরিকশা ও বাস-ট্রাক ভাঙচুর করে। পাশাপাশি হেমা পরিবহনের একটি বাসে অগ্নিসংযোগ করে। এ ঘটনায় সিরাজগঞ্জ বাস, মিনিবাস ও কোচ মালিক সমিতি অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাকা দেয়। বড় ধরনের সহিংসতা এড়াতে উপজেলা সদরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের ওসি রওশন আলী জানান, বেলকুচি পৌরসভা কার্যালয়ে হামলা, সরকারি কাজে বাধা ও মেয়রকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় পৌর মেয়র আশানুর বিশ্বাসের করা মামলায় সাজ্জাদুল হক রেজা এবং ওমর ফারুক সরকারকে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রেপ্তার করে সিরাজগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁদের সমর্থকরা উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়কে গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এর প্রতিবাদে ওই দিনই সিরাজগঞ্জ বাস, মিনিবাস ও কোচ মালিক সমিতি সিরাজগঞ্জ-এনায়েতপুর রুটে যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে। পরে জরুরি সভা ডেকে দোষীদের শাস্তির দাবিতে গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে। তবে এ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।

এদিকে সিরাজগঞ্জ বাস, মিনিবাস ও কোচ মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম জানান, যে পর্যন্ত দোষীদের শাস্তির আওতায় না আনা হবে সে পর্যন্ত এ ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।


মন্তব্য