kalerkantho


জামালপুর

বিআরডিবি কর্মকর্তার দুর্নীতির তদন্ত শুরু

জামালপুর প্রতিনিধি   

১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



জামালপুর সদর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন (বিআরডিবি) কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও সমিতির সদস্যদের সঙ্গে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে। জামালপুর সদরের নিবন্ধিত সমবায় সমিতির সদস্যদের পক্ষে পাঁচজন ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিআরডিবির ঢাকার প্রধান কার্যালয়ে অভিযোগ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের ঋণ শাখার উপপরিচালক এ কে এম আশরাফুল ইসলাম অভিযোগগুলোর তদন্ত শুরু করেছেন। গতকাল রবিবার তিনি জামালপুরে অফিস ও মাঠ পর্যায়ে তদন্ত করে ঢাকায় ফিরেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, বিআরডিবি কর্মকর্তা শিরিন আক্তার গত বছর জামালপুরে যোগদানের পর থেকেই নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতায় জড়িয়ে পড়েন। গত ১১ মাসে তিনি কোনো সমবায় সমিতির পরিদর্শনে যাননি। তা ছাড়া নিয়মিত অফিসও করেন না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কর্মকর্তা শিরিন আক্তার প্রভাব খাটিয়ে তাঁর কার্যালয়ের কক্ষকে আবাসিক কক্ষ বানিয়েছেন। সেখানে খাট পেতে লেপ-তোশক ও চাদর বিছিয়ে অফিস চলাকালে ঘুমান। এতে অফিসের পরিবেশ নষ্ট হওয়াসহ অনেক সময় সেবাগ্রহীতারা বিব্রত অবস্থায় পড়ে। তাঁর একক কর্তৃত্ব ও প্রভাবের কারণে অফিসের অন্য কর্মকর্তা ও কর্মচারী অতিষ্ঠ হয়ে উঠলেও চাকরির ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পান না।

তবে বিআরডিবি কর্মকর্তা শিরিন আক্তার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি অসুস্থ। তাই যখন শরীর খারাপ লাগে তখন একটু রেস্ট নিই। আমার বিরুদ্ধে অফিসে অনুপস্থিতির অভিযোগ সঠিক নয়।’

অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা এ কে এম আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘কর্মকর্তা শিরিন আক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী পাঁচজনের সঙ্গে কথা বলেছি।’

 


মন্তব্য