kalerkantho


শরণার্থী শিশুদের মাঝে প্রিয়াঙ্কা

রংবেরং ডেস্ক   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



শরণার্থী শিশুদের মাঝে প্রিয়াঙ্কা

জাতিসংঘের শিশু তহবিল বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত তিনি। আর সেই পরিচয়ে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া গিয়েছিলেন জর্দানের রাজধানী আম্মানে, সিরিয়ার শরণার্থীদের দেখতে।

২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর ছয় বছরে ৫০ লাখ সিরীয় নাগরিক বাস্তুচ্যুত হয়েছে। তাদের মধ্যে এক লাখ ৮০ হাজার থাকে জর্দানে। এসব শরণার্থীর শতকরা ৮০ ভাগ থাকে নির্দিষ্ট শরণার্থী শিবিরের বাইরে। এরা আশ্রয় নিয়েছে জর্দানের বিভিন্ন শহর, শহরতলি ও গ্রামাঞ্চলে। নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সেসব তথ্যও জানিয়েছেন ‘বেওয়াচ’ তারকা। তিনি ঘুরে ঘুরে শরণার্থী শিশুদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন। এ জন্য গেছেন শরণার্থী শিবির থেকে শুরু করে শরণার্থী শিশুদের জন্য বিশেষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও। শিশুদের সঙ্গে আনন্দময় কিছু মুহূর্তের ছবি দিয়েছেন ইনস্টাগ্রামে।

তবে এসব দেখে সবাই যে খুশি হয়েছেন, তা কিন্তু নয়।

নিজের দেশ ভারতেই উঠেছে কথা। নিজের দেশে এত দুস্থ শিশু থাকতে বাইরে গিয়ে কেন দুস্থ শিশুদের দেখতে যেতে হবে?

টিভি ধারাবাহিকের পরিচালক রবীন্দ্র গৌতম তো টুইট করে সে কথাই বলেছেন, ‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে ভারতের গ্রামীণ জনপদগুলো ঘুরে দেখার অনুরোধ করছি, সেখানে ক্ষুধার্ত শিশুরা খাবারের জন্য অপেক্ষা করছে। ’

এসব শুনে চুপ থাকেননি প্রিয়াঙ্কাও, ফিরতি এক টুইটে বলেছেন, ‘ইউনিসেফের হয়ে ১২ বছর ভারতের অনেক জায়গা ঘুরেছি। আপনি কী করেছেন রবীন্দ্র গৌতম? কেন এক শিশুর চেয়ে আরেক শিশুর সমস্যা ছোট করে দেখতে হবে?’


মন্তব্য