kalerkantho

বাণিজ্যিক সাবা

‘খেলাঘর’, ‘চন্দ্রগ্রহণ’, ‘প্রিয়তমেষু’র অভিনেত্রী সোহানা সাবা প্রথমবারের মতো অভিনয় করলেন নাচগানে ভরপুর সিনেমায়। তাঁকে নিয়ে লিখেছেন মীর রাকিব হাসান। ছবি তুলেছেন নূর-এ-আলম

১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



বাণিজ্যিক সাবা

রাত সাড়ে ১১টার ফ্লাইটে কলকাতা থেকে ঢাকায় এলেন। ১২টার দিকে পরিচালক সাইফ চন্দনের মেসেজ, ‘সকাল ৮টায় গাড়ি পাঠিয়ে দিচ্ছি, সিনেমার শুটিং।

’ পরিচালকের সঙ্গে সাবার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। ভাবলেন, হয়তো মজা করেছেন পরিচালক। অনেক দিন ধরেই বলছিলেন সিনেমা বানাবেন, সাবাকে অভিনয় করতে হবে। সাবাও তাল দিয়ে যাচ্ছিলেন। শিওর হওয়ার জন্য ফোন দিলেন। “ফোন করার পর মনে হলো উনি খুবই সিরিয়াস। সত্যিই সকালে শুটিং। আমার বুঝে ওঠার আগে শুটিং শুরু হয়ে গেছে। স্পটে গিয়ে দেখি আমার খুব পছন্দের একজন ডিজাইনার কাজ করছেন। তারপর আমিও মন দিয়ে শুটিং করলাম। আসলে কলাকুশলীরা সবাই তো খুব পরিচিত। ‘আমরা আমরাই’ টাইপের ফান করতে করতে শুটিং করেছি”—বললেন সাবা।

সিনেমার নাম ‘আব্বাস ওটু’। সাবা ‘ওটু’ আর নীরব আব্বাস। ছবি প্রসঙ্গে সাবা বলেন, ‘বলব না এ রকম সিনেমা বা এ রকম চরিত্র আগে হয়নি। আমরা নতুন কিছুই আবিষ্কার করিনি। সাদামাটাভাবে মজার একটা গল্প বলতে চেয়েছি। ’

বাণিজ্যিক বা ফর্মুলাভিত্তিক ছবি বলতে যা বোঝায়, নাচ, গান, মারামারি—সবই থাকবে ‘আব্বাস ওটু’তে। এ ধরনের ফর্মুলা ছবিতে সাবাকে আগে কখনোই দেখা যায়নি, নতুনত্বটা বোধ হয় এখানেই। ‘ক্যারিয়ারের শুরুতেই নাচগানের ছবির অফার পেয়েছিলাম। কিন্তু তখন মনে হয়নি এসব আমার করা উচিত। এবার মনে হলো করা যায়, তাই করলাম। আমি মনে করি, বাণিজ্যিক ছবির নায়িকাদের মধ্যে যে মাসালাটা দরকার, তা আমার মধ্যে আছে। এখন দেখা যাক কী হয়। মজার ব্যাপার হলো, এই ছবির শুটিং শুরুর পর থেকেই প্রচুর ফর্মুলা ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি’—বললেন সাবা।

শুটিংয়ের দ্বিতীয় দিনেই করলেন অ্যাকশন দৃশ্য। এবারই প্রথম করলেন এমন দৃশ্যের শুটিং। প্রথম দিকে কিছুটা সমস্যা হলেও পরিচালক ও ইউনিটের সবার সহযোগিতায় সহজেই মানিয়ে নিতে পেরেছেন। ছবির ৮০ শতাংশ শুটিং শেষ।

ওপার বাংলায়ও জমিয়ে অভিনয় করছেন। অয়ন চক্রবর্তীর ‘ষড়িরপু’ দিয়ে গত বছর টালিউডে অভিষেক হয়েছিল। ছবিতে সাবার অভিনয় দারুণ প্রশংসিত হয়। এবার করছেন হরনাথ চক্রবর্তীর ‘এপার ওপার’। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন দুই বাংলার দুই পরিবারের সত্য ঘটনা অবলম্বনে গল্প। প্রধান নারী চরিত্রে পাওয়া যাবে সাবাকে। ছবিতে তাঁর বিপরীতে বড় পর্দায় অভিষেক হবে ভারতের জনপ্রিয় বাংলা সিরিয়াল ‘ওগো বিদেশিনী’র নায়ক সৌরভ চট্টোপাধ্যায়ের। সুদীপ্ত সিংহ রায়ের পরিচালনায় আরেকটি সিনেমার শুটিংও শেষ করে এসেছেন। নাম ঠিক হয়নি। এখানেও সাবার বিপরীতে সৌরভ। আরো কিছু সিনেমায় অভিনয়ের ব্যাপারে কথা হয়েছে, চুক্তিও সই করে এসেছেন। বিস্তারিত জানাবেন শুটিংয়ে যাওয়ার আগে।

আজ [১২ অক্টোবর] সাবার জন্মদিন। ১৮ অক্টোবর ছেলে স্বরবর্ণের জন্মদিন। চার বছরে পা দেবে ছেলে। স্কুলজীবন শুরু হয়ে যাবে। এ নিয়েও আছে কিছু প্ল্যান-প্রগ্রাম।

 

‘ফুলশ্রী’ নামে এসিড ভিকটিমদের নিয়ে একটি এনজিও চালু করেছিলেন, তার অবস্থা কী? “আমি আসলে এদের এসিড ভিকটিম বলতে চাইছি না, বলব ফুলশ্রী। তাদের মুখটা ফুলের মতো। সেটাই তাদের বোঝাব। শুধু তাদের সার্জারি করে দিয়েই কাজ শেষ নয়, তারা যেন সমাজে সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে সেদিকেও খেয়াল রাখা হবে। পাশাপাশি হতাশাগ্রস্ত মানুষদের পাশেও দাঁড়াতে চাইছি। একটা মানুষ যখন হতাশ হয়ে পড়ে, তখন নানা রকম অপরাধ করে বসে। দিনের একটা সময় হোক কিংবা সপ্তাহের একটা সময় হোক, তাদের জন্য বের করি। তাদের কথা শোনার চেষ্টা করি, পরামর্শ দিয়ে পাশে থাকার চেষ্টা করি। এর নাম ‘সাবাস কনফেশন বক্স’। কিন্তু আমি তো একা। যদি এগুলোতে বেশি নজর দিই, প্রফেশনে পিছিয়ে পড়ি। আবার ওদিকে নজর দিলে এগুলো ঠিকভাবে করতে পারি না। তার পরও ব্যালান্স করার চেষ্টা করছি”—বললেন সাবা।


মন্তব্য