kalerkantho


আবার ‘আশিক বানায়া’

‘হেট স্টোরি ৪’ ছবিতে ‘আশিক বানায়া আপনে’ গানটি রিমেক করে আবারও আলোচনায় হিমেশ রেশমিয়া। এই গায়ক-সংগীত পরিচালককে নিয়ে লিখেছেন সজল সরকার

১৫ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



আবার ‘আশিক বানায়া’

হিমেশ রেশমিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় গান ‘আশিক বানায়া আপনে’ ছবির টাইটেল। ইমরান হাশমি ও তনুশ্রী দত্তের আবেদন জাগানো সেই ভিডিও গানের রসায়নকে আরো জমিয়ে দিয়েছিল। ২০০৫ সালের সেই গানটি প্রায় ১৩ বছর পর রিমেক হয়ে এলো ‘হেট স্টোরি ৪’ ছবিতে। রিমেকে হিমেশের সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছেন নেহা কাক্কর। এর ফলে গানের আবেদন আরো এক ডিগ্রি ওপরে উঠেছে বলা যায়। গানটির রিমেকেও রোমান্টিক দৃশ্যায়ন করা হয়েছে। ২০০৫ সালে ইমরান হাশমি ও তনুশ্রী যে আবেদন জাগিয়েছিলেন এবার সেটাকে ছাড়িয়ে যেতে চাইলেন উর্বশী। অল্প সময়ের ব্যবধানেই গানটি পেয়ে গেছে হিটের তকমা। হিমেশ নিজেও অনেক খুশি। এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমি মনে করি ‘হেট স্টোরি ৪’ ছবিতে ‘আশিক বানায়া আপনে’র নতুন সংস্করণ সেরা গানের মধ্যেই থাকবে। এতে আমার সঙ্গে নেহা কাক্করের কণ্ঠের এক অদ্ভুত মিশ্রণ ঘটেছে।”

সংগীতপাগল হিমেশ রেশমিয়া ক্লাসিক্যাল, সেমি-রক, হেভি মেটাল—কোনোটাই বাদ দেন না। অতি রোমান্টিক গানের পরই দেখা গেল মুর্শিদি ধাঁচের গান কম্পোজ করেন, যা সাধারণত অন্য সংগীতশিল্পীদের ক্ষেত্রে দেখা যায় না। ‘দাবাং’ নায়ক সালমান খান হিমেশের খুব প্রিয়। এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘সালমান খান আমার অনুপ্রেরণা ও গডফাদারও বলা যায়, আমি এখন যে পর্যায়ে আছি তার জন্য সালমানের কাছে ঋণী।’ ঋণী হবেনই না বা কেন? ২০০৩ সালে সালমান অভিনীত ‘তেরে নাম’ ছবির সংগীত পরিচালনা করেই যে সংগীত ক্যারিয়ারে তাঁর বাঁকবদল। তার পর থেকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

সব সময় ব্যতিক্রমী কিছু করার নেশা হিমেশের। এ বছর অনিল শর্মার ‘জিনিয়াস’ ছবির  সংগীত পরিচালনায়ও ভিন্ন ভিন্ন গান থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এরই মধ্যে ছবির ‘হোলি হে’ গানটিও প্রকাশ করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আসবে বাকি গানগুলো। ছবিটি মুক্তি পাবে ২৪ আগস্ট।

হিমেশের মতে, এখন আর শুধু ছবিতে গান করেই জনপ্রিয় শিল্পী হওয়ার সীমাবদ্ধতাটি নেই। কারণ সংগীতশিল্পীদের প্ল্যাটফর্ম এখন বিশাল। বিভিন্ন রিয়ালিটি শোতে অংশ নিয়ে অনেকেই সুপারস্টার হয়ে যাচ্ছেন, তাঁদের অনেকেই ছবিতে প্লেব্যাক করেন না। ‘দ্য ভয়েস ইন্ডিয়া কিডস রিয়ালিটি শো’র বিচারক হিসেবে কাজ করা হিমেশের ভাষ্য, ‘আমি জানি এই প্রতিযোগিতায় যারা অংশ নিয়েছে তাদের অনেকেই ছবিতে প্লেব্যাক করা ছাড়াই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী হিসেবে নাম করবে। কারণ মেধাবী শিল্পীদের এখন বিস্তর জায়গা রয়েছে মেধা বিকাশের জন্য। মঞ্চ,  একক অ্যালবাম, ইউটিউবসহ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম—সবই এখন উন্মুক্ত তাদের নিজেদের উপস্থাপনের জন্য।

গায়ক হিমেশ বেশ কয়েকটি ছবিতেও নায়ক হয়েছেন। ‘আপ কা সুরুর’ দিয়ে রঙিন পর্দায় নায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ। সংগীতশিল্পীর জীবনকাহিনি নিয়ে নির্মিত ছবিটিতে সংগীত পরিচালক ছিলেন হিমেশ নিজেই। সংগীত পরিচালক হিসেবে হিমেশ রেশমিয়ার কাজ শুরু করেন ১৯৯৮ সাল থেকে। ‘বন্ধন’ ও ‘পেয়ার কিয়া তো ডরনা কেয়া’ সিনেমা দিয়ে যাত্রা শুরু করেন। এর পর থেকেই এই মাধ্যমে নিয়মিত। ‘হ্যালো ব্রাদার’, ‘দুলহান হাম লে জায়েঙ্গে’, ‘তেরে নাম’, ‘এতরাজ’, ‘দিল মাঙে মোর’, ‘আশিক বানায়া আপনে’, ‘আনজানে’, ‘ওয়েলকাম’, ‘বডিগার্ড’, ‘কিক’, ‘প্রেম রতন ধন পাও’সহ বলিউডের অনেক জনপ্রিয় ছবিতে কাজ করেছেন। তাঁর  

নাকি কণ্ঠে গাওয়া ‘ঝালাক দেখলাজা’, ‘তেরা সুরুর’, ‘জারা ঝুম ঝুম’, ‘শাকালাকা বুম বুম’ গানগুলো হিন্দি গানের বাজার কাঁপিয়েছে। সামনে আরো নতুন নতুন গান নিয়ে হাজির হওয়ার ইচ্ছা তাঁর।


মন্তব্য