kalerkantho

আদালতে রিট

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কোনো দিন শিক্ষকতা না করে উচ্চ আদালতে শিক্ষক দাবি করে রিট করেছেন মাসুদা পারভিন। তিনি মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার সোনাপুর গ্রামের আলী মতুর্জার মেয়ে। রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১ জানুয়ারি কেন তাঁকে সরকারি বেতন-ভাতাসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে না জানতে চেয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাব্যবস্থাপককে (ডিজি) চার সপ্তাহের রুল জারি করেছেন উচ্চ আদালতের বিচারপতি নাইমা হায়দার ও জাফর আহমেদ। উচ্চ আদালতের নির্দেশে ডিজি মেহেরপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে ১০ দিনের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। রিট আবেদনে বলা হয়েছে, মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার শিবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠিত। বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠাকালে শিক্ষক ছিলেন মাসুদা পারভিন। ২০১৩ সালে বিদ্যালয়টি সরকারীকরণ হওয়ার পর শিক্ষক পদ থেকে তাঁকে বঞ্চিত করা হয়েছে। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের উচ্চমান সহকারী লুত্ফর রহমান জানান, আদালতের আদেশে তদন্ত করা হয়েছে। মাসুদা নামের কেউ বিদ্যালয়টিতে শিক্ষকতা করার কোনো প্রমাণ মেলেনি। এদিকে ঘটনা জানার পর সরেজমিনে শিবপুর গ্রামে বিভিন্ন ব্যক্তি, বিদ্যালয়টির পরিচালনা কমিটি, বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাসুদা পারভিন নামের কেউ এই বিদ্যালয়ে কোনো দিন শিক্ষকতা করেননি।


মন্তব্য