kalerkantho


যাত্রীদের ক্ষোভ

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ ভারতগামী যাত্রীদের ওপর নতুন করে টার্মিনাল ফি বাড়ানোয় ক্ষোভে ফেটে পড়েছে যাত্রীরা। সেবার মান না বাড়িয়ে নতুন করে ফি আরোপ করাকে সহজভাবে নিচ্ছে না তারা। বাড়তি টাকা গুনতে গিয়ে বন্দর কর্মচারীদের সঙ্গে যাত্রীদের বাগিবতণ্ডা হচ্ছে প্রতিনিয়ত। যাত্রীরা বলছে, সেবা না দিয়ে যাত্রীদের ওপর জুলুম করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। পক্ষান্তরে কর্তৃপক্ষ বলছে, যাত্রীসেবা বাড়ানোর জন্য সব ধরনের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বেনাপোল দিয়ে দ্রুত ও সহজে কলকাতার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায় বলে চিকিৎসা ও ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য সাধারণ যাত্রীরা এ পথেই বেশি যাতায়াত করে। প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ হাজার দেশি-বিদেশি যাত্রী যাতায়াত করছে এ পথে। কিন্তু নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই যাত্রীদের ট্যাক্স বাড়িয়ে ৪০ টাকা ৭৫ পয়সা নির্ধারণ করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ, যা ৩৮ টাকা ৭৬ পয়সা থাকার কথা। তবে টাকা খুচরা না থাকার কথা বলে যাত্রীদের কাছ থেকে ৪২ টাকা করে ট্যাক্স আদায় করা হচ্ছে। তা ছাড়া যাত্রীদের ব্যাগ বহনের জন্য ট্রলি থাকার কথা থাকলেও তা এখনো সংযুক্ত হয়নি। পর্যাপ্ত সংখ্যক টয়লেটের ব্যবস্থাও করা হয়নি। সেবার মান না বাড়িয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে ট্যাক্সের পরিমাণ বাড়ানোয় প্রায়ই বাগিবতণ্ডা হচ্ছে টার্মিনালে। ভারতের উদ্দেশে গমনকারী তানজীর হোসেন বলেন, ‘একবার সরকারকে ভ্রমণ কর বাবদ ৫১০ টাকা দিতে হয় সোনালী ব্যাংকে। আবার বন্দরে টার্মিনাল ফি বাবদ দিতে হয় ৪২ টাকা। কোনো সুবিধা না দিয়ে কেন তারা জোর করে টাকা নিচ্ছে?’ ভারতগামী আরেক যাত্রী নিখীল চন্দ্র বলেন, ‘সেবার মান ভালো না করে যাত্রীদের কাছ থেকে টাকা আদায় অনৈতিক। দীর্ঘদিনেও প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী যাত্রীদের সেবা দিতে পারেনি বন্দর কর্তৃপক্ষ। অথচ মনগড়া ফি আরোপ করা হচ্ছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দেখা দরকার।’

বেনাপোল বন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘যাত্রীদের কাঙ্ক্ষিত সেবা নিশ্চিত করতে বন্দর কর্তৃপক্ষ সব সময় আন্তরিক। আর কিছুদিনের মধ্যে যাত্রীদের সেবার মান বাড়বে।’ তবে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়টি তাঁর জানা নেই বলে তিনি দাবি করেন।


মন্তব্য