kalerkantho


মিরসরাই উপজেলা শুভসংঘের নতুন কমিটি

অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পাশে শুভসংঘ

সাইফুল ইসলাম নাঈম ও আজিজ আজহার   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পাশে শুভসংঘ

অসহায় মুক্তিযোদ্ধার পাশে দাঁড়িয়েছেন মিরসরাই উপজেলা শুভসংঘের নতুন কমিটির বন্ধুরা। ছবি : সাদমান সময়

শুভ কাজে সবার পাশে স্লোগান ধারণ করে চট্টগ্রামের প্রবেশপথ মিরসরাই উপজেলায় কাজ করছে কালের কণ্ঠ ‘শুভসংঘ’। সম্প্রতি নতুন প্রজন্মের তরুণদের নিয়ে গঠিত হলো নতুন কমিটি। একটি মহতী কাজের মধ্য দিয়ে শুরু হলো ভবিষ্যতের পথচলা। বিজয়ের মাসে খুঁজে বের করা হলো একজন অসহায় মুক্তিযোদ্ধা। গত ১৭ ডিসেম্বর রবিবার সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে নিজেদের শুরুর দিনে ভালোবাসা আর সম্মাননায় সিক্ত করলেন ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা কামাল পাশাকে। শুধু তা-ই নয়, রণাঙ্গনের এ বীর সেনানীর ভাতাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে সহযোগিতার আশ্বাস দেন শুভসংঘের নেতারা।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন চট্টগ্রামের মিরসরাই এলাকায় সম্মুখযুদ্ধে অংশ নেওয়া বীর যোদ্ধা মোস্তফা কামাল বিজয়ের ৪৬ বছর পর শুভসংঘ থেকে সামান্য সম্মান পেয়ে আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বলেন, ‘কিছু পাওয়ার আশায় যুদ্ধে যাইনি। মুক্তিযুদ্ধের পর কেউ আর খবর রাখেনি। শুভসংঘ আমাকে এত বড় সম্মান দেওয়ায় আমি খুব খুশি হয়েছি।’

সকাল ১০টায় শুরু হওয়া নতুন কমিটির অভিষেক ও মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা অনুষ্ঠানের প্রথমেই রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর কালজয়ী কবিতা ‘বাতাসে লাশের গন্ধ’ আবৃত্তি করেন নবগঠিত কমিটির নারীবিষয়ক সম্পাদক সাদিয়া স্মৃতি। সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম নাঈমের উপস্থাপনায় সূচনা বক্তব্য রাখেন কালের কণ্ঠ’র মিরসরাই প্রতিনিধি এনায়েত হোসেন মিঠু। এ ছাড়া তিনি শুভসংঘের নবগঠিত কমিটির সদস্যদের উপস্থিত সবার সামনে পরিচয় করিয়ে দেন এবং ভবিষ্যতের করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোকপাত করেন।

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও নতুন প্রজন্মের করণীয় তুলে ধরে বিশদ আলোচনা করেন নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন, মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আবছার, স্থানীয় সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নারায়ণ সরকার, মিরসরাই প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, বারইয়ারহাট কলেজের বাংলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক বোরহান উদ্দিন, জোরারগঞ্জ মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আশীষ দেব বর্মণ, মিরসরাই থানার ওসি (তদন্ত) রমিজ উদ্দিন, সাংস্কৃতিককর্মী ও কবি শাহাদাত হোসেন লিটন, দৈনিক আমাদের সময় মিরসরাই প্রতিনিধি নুরুল আলম, পাক্ষিক খবরিকা সম্পাদক মাহবুবুর রহমান পলাশ, উপজেলা ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির প্রধান এম সাইফুল্লাহ্ দিদার, মিরসরাই সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হোসাইন সবুজ, শান্তি নীড় সভাপতি আশরাফ উদ্দিন সোহেল ও প্রজন্ম মিরসরাইর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তানভীর হোসেন তপু।

বক্তারা বলেন, বাঙালির স্বাধীনতার ইতিহাস মাত্র ৯ মাসের নয়। দীর্ঘ ২০০ বছরের বেশি সময় ধরে শোষণ-নিপীড়ন আর বঞ্চনার শিকার হয়ে অবশেষে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে এ দেশের শৃঙ্খলিত মানুষ মুক্তি পেয়েছে। ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বাঙালি ছিনিয়ে এনেছে একটি লাল সবুজ পতাকা, একটি স্বাধীন ভূখণ্ড আর অর্থনৈতিক মুক্তি। মুক্তিযুদ্ধ শুধু হৃদয়ে লালন করলে চলবে না, এর প্রকৃত ইতিহাস, ঘটনাপ্রবাহ ও নেপথ্যের গল্প জানতে বেশি করে বই পড়তে হবে এবং পাশের জনকে তা জানাতে হবে।

এ ছাড়া গত ৭ ডিসেম্বর গঠিত হয় শুভসংঘ মিরসরাই উপজেলা শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটি। কালের কণ্ঠ’র মিরসরাই প্রতিনিধি এনায়েত হোসেন মিঠুর সঞ্চালনায় ও শুভসংঘ মিরসরাই উপজেলা শাখার আহ্বায়ক সুভাষ সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় নতুন কমিটির খসড়া প্রস্তাব করা হয়। দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের সম্মতিতে সুভাষ সরকারকে সভাপতি এবং সাইফুল ইসলাম নাঈমকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩৪ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

কমিটির উপদেষ্টারা হলেন—অধ্যাপক ডা. জামসেদ আলম, অধ্যক্ষ নুরুল আবছার, নারায়ণ সরকার, মাস্টার গিয়াস উদ্দিন, মঈনউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী সেলিম, মাহমুদ নজরুল, শাহাদাত হোসেন লিটন, ডা. দাউদুল ইসলাম, মুহাম্মদ দিদারুল আলম। অন্য সদস্যরা হলেন—সহ-সভাপতি হোসাইন সবুজ ও সরওয়ারুল আলম তুহিন, আজিজ আজহার (যুগ্ম সম্পাদক), সাদমান সময় (সাংগঠনিক সম্পাদক), আজিম হোসেন রনি (প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক), বাবলু দে (কোষাধ্যক্ষ), মেহেরুল আলম প্রান্ত (সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক), রাশেদুল ইসলাম (সমাজকল্যাণ সম্পাদক), মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন নাঈম (ক্রীড়া সম্পাদক), সাদিয়া স্মৃতি (নারীবিষয়ক সম্পাদক)। সদস্যরা হলেন—ইকবাল হোসেন জীবন, নাঈমুল ইসলাম, মো. জিহাদুল ইসলাম, বায়োজিদ সাকিব, বোরহান উদ্দিন, কাজী রিশাদ, রায়হান চৌধুরী, ফখরুল আলম, সানজিদা আক্তার ও জান্নাতুল ফেরদৌস সূচনা।


মন্তব্য