kalerkantho


পেরেছেন তো বোল্ট!

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



পেরেছেন তো বোল্ট!

রাঙাতে চেয়েছিলেন বিদায়টা। পেরেছেন কি উসাইন বোল্ট? এতক্ষণে নিশ্চয়ই জেনে গেছেন আপনি। গতকাল বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ৫০ মিনিটে ছিল ৪ গুণিতক ১০০ মিটার রিলের ফাইনাল। এর আগে বিকেলের হিটে দাপটেই ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বোল্টের জ্যামাইকা। হিটে জ্যামাইকা সময় নিয়েছিল ৩৭.৯৫ সেকেন্ড। জাস্টিন গ্যাটলিন এখানেও প্রতিদ্বন্দ্বী বোল্টের। গ্যাটলিনের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্র ফাইনাল নিশ্চিত করে ৩৭.৭০ সেকেন্ডে। টাইমিংই বলছে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যে যুক্তরাষ্ট্র। তাই সোনা জিতে ক্যারিয়ারের ইতি টানতে হলে বিশেষ কিছুই করতে হবে তারুণ্যনির্ভর জ্যামাইকাকে।

হিটে জ্যামাইকার হয়ে অংশ নিয়েছিলেন উসাইন বোল্ট, জুলিয়ান ফোর্ট, মাইকেল ক্যাম্পবেল ও তাইকোয়েন্দো ট্রেসি। বোল্ট ছাড়া এ তরুণদের আর কারো নেই অলিম্পিক বা বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে সোনা।

২০১২ অলিম্পিকে লন্ডনেই রিলেতে বোল্টের জ্যামাইকার বিশ্বরেকর্ড ছিল ৩৬.৮৪ সেকেন্ডের। অন্য তিন সতীর্থ নেস্তা কার্টার, ইয়োহান ব্লেক ও মাইকেল ফ্রাটার। কার্টারের ডোপ পাপে ২০০৮ পেইচিং অলিম্পিকে জেতা রিলের সোনা হারানোয় এবার দলে নেই এই ডোপপাপী। নেই ফ্রাটারও। অভিজ্ঞ সঙ্গী ব্লেক নামেননি গতকালের হিটে। তাঁকে ছাড়া ফাইনাল জেতা যে কঠিন, ভালোই জানা বোল্টের। তাই ব্লেকের অপেক্ষায় ছিলেন এই কিংবদন্তি, ‘রিলের কঠোর অনুশীলন করেছি আমরা। কয়েকটা ক্যাম্পও হয়েছে। এর পরও কিছু ভুল রয়ে গেছে। ইয়োহান ব্লেক ফাইনালে ফিরছে, এটা দলের জন্য স্বস্তির খবর। ’

৪ গুণিতক ১০০ মিটার রিলের পর বুট জোড়া তুলে রাখবেন বোল্ট। তাঁর অবসরের পর নিশ্চয়ই আলো ছড়াবে তরুণ কেউ। তবে বোল্ট যে দাপটে অলিম্পিকে আটবার বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে ১১ সোনা জিতেছেন, এমন কিছুর পুনরাবৃত্তি এককথায় অসম্ভব। এ জন্যই বোল্টকে শেষবার দেখতে গতকাল কানায় কানায় ভরে উঠেছিল গ্যালারি। তাঁকে ট্র্যাকে আসতে দেখেই উল্লাসে ফেটে পড়ে পুরো স্টেডিয়াম। দর্শকদের এমন অভিবাদনে আবেগাপ্লুত বোল্ট, ‘দর্শকদের কাছ থেকে যেভাবে প্রাণশক্তি পেলাম তাতে বিদায়ের ব্যথা অনুভব করা কঠিন আমার জন্য। খুবই খুশি আমি। ঠিক কেমন লাগছে—সেটা ভাষায় প্রকাশ করা সত্যি কঠিন। ’

১০০ মিটারে সোনা ও রুপা জেতা জাস্টিন গ্যাটলিন, ক্রস্টিয়ান কোলম্যানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের রিলে দলে দৌড়েছেন মাইক রজার্স ও বিজে লি। তাঁদের চেয়ে শূন্য দশমিক ৬ সেকেন্ড বেশি সময় ছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ডের। এ ছাড়া ফাইনাল নিশ্চিত করা অন্য পাঁচ দেশ ফ্রান্স, চীন, জাপান, তুরস্ক ও কানাডা। এএফপি


মন্তব্য