kalerkantho


দক্ষিণ আফ্রিকায়

পরবর্তী ‘পদক্ষেপ’ ফেলতে চান মুশফিক

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



পরবর্তী ‘পদক্ষেপ’ ফেলতে চান মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দেশের বাইরেও নিজেদের টেস্ট সামর্থ্য আংশিক প্রমাণ করা গেছে। ‘আংশিক’ এ জন্যই যে সম্প্রতি বাংলাদেশের টেস্ট জয়টি শ্রীলঙ্কার মাটিতে।

নিজেদের শততম টেস্টের এই সাফল্য ভারতীয় উপমহাদেশে বলেই হয়তো এখনো অন্যের ডেরায় দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে বাংলাদেশের সামর্থ্য প্রশ্নাতীত নয়। মুশফিকুর রহিমেরও তা অজানা নয়। নয় বলেই বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়কের স্থির করা পরবর্তী লক্ষ্যটি সেই ‘দেশের বাইরে ভালো খেলা’র মধ্যে সীমাবদ্ধ এখনো।

আজ থেকে বেনোনির সাহারা উইলোমোর পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার আমন্ত্রণমূলক একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ সামনে রেখে মুশফিক তা বলেছেনও। গতকাল অনুশীলনের এক ফাঁকে দক্ষিণ আফ্রিকান মিডিয়াও মুখোমুখি হয়েছিল তাঁর। সেখানেই বলেছেন দেশের বাইরে নিজেদের মেলে ধরার লক্ষ্যের কথা। তাঁর নেতৃত্বেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট জয় ধর্তব্যের মধ্যে রাখলে নিশ্চয়ই এই ব্যাটসম্যানের মুখে এমন কথা শোভা পেত না, ‘গত কয়েক বছর ধরে তিন ডিপার্টমেন্টেই খুব ভালো ক্রিকেট খেলছি আমরা। এই সময়ের মধ্যে দেশের মাটিতে আমরা অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলেছি এবং আমাদের পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতাও ছিল। অস্ট্রেলিয়াকেও হারিয়েছি আমরা।

তাই বলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওদের নিজেদের মাটিতে ভালো করাটা খুব সহজও হবে না। তবে আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ হলো দেশের বাইরেও ভালো খেলা। আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য এখন এটিই। এই লক্ষ্যটিই অর্জন করতে হবে আমাদের। ’  সেটি অর্জনের লক্ষ্যে খুঁটিনাটি সেরে নিতে হবে আজ শুরু হতে যাওয়া তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ থেকেই। যে ম্যাচে প্রতিপক্ষ শিবিরে মূলত সিএসএ (ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা) একাডেমির ক্রিকেটারদেরই আধিক্য। এই তরুণদের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেটের কিছু অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকেও। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে পচেফস্ট্রুমে শুরু হতে যাওয়া দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টের আগে এই তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ মুশফিকদের জন্য নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার সুযোগও। এই ম্যাচটি শুরু হবে স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় (বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায়)।

আসন্ন টেস্ট সিরিজে ভালো কিছুর জন্য নিজ দলের তরুণদের দিকেও তাকিয়ে মুশফিক। বিশেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর তাঁদের জন্য নতুন এক অভিজ্ঞতাও হবে বলে মনে করেন টেস্ট অধিনায়ক, ‘এটি আমাদের দলের তরুণ কয়েকজনের জন্য দারুণ সুযোগও। এই কন্ডিশনের অভিজ্ঞতা নেওয়ার দারুণ সুযোগ ওদের সামনে। ’ দলের সবাই মিলে সুযোগ কাজে লাগিয়ে টেস্ট সিরিজ জমিয়ে তোলারও প্রত্যাশা মুশফিকের, ‘আশা করছি সামনে দারুণ এক সিরিজই অপেক্ষা করে আছে। ইনশাল্লাহ ছেলেরা ভালোই করবে। আমাদের হাতে আরো কয়েক দিন সময় আছে। কাল (আজ) তো প্রস্তুতি ম্যাচই শুরু হয়ে যাচ্ছে। আশা করছি আমরা দারুণ পারফরম করব এবং সেটি নিজেদের মতো করেই। ’ ইংল্যান্ডে প্রোটিয়াদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স সুবিধার না হলেও তাঁদের সমীহই করতে হচ্ছে মুশফিকের কারণ, ‘আপনি যখন নিজের চেনা পরিবেশে খেলবেন, তখন সেখানকার উইকেট নিয়ে স্বচ্ছ ধারণাই থাকবে আপনার। ওরা যদিও ইংল্যান্ডে হেরেছে তবু আমি বলব দক্ষিণ আফ্রিকা এখনো যথেষ্ট শক্তিশালী দল। নতুন কোচ নিয়ে শুরু করছে ওরা। ওটিস গিবসন এখানে নতুন হলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিনি পুরনো। তবু আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুর্দান্ত ক্রিকেটই খেলতে চাই। ’


মন্তব্য