kalerkantho


প্রশংসায় ভাসছেন কুলদীপ

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



প্রশংসায় ভাসছেন কুলদীপ

স্বপ্ন ছিল ফাস্ট বোলার হওয়ার। কোচের পরামর্শে হয়েছেন স্পিনার।

স্পিন যে খারাপ করেন না কুলদীপ যাদব বুঝিয়ে চলেছেন প্রতিনিয়ত। ক্যারিয়ারের নবম ওয়ানডেতে পেয়ে গেলেন হ্যাটট্রিক। চেতন শর্মা, কপিল দেবের পর তৃতীয় ভারতীয় বোলার হিসেবে ওয়ানডেতে হ্যাটট্রিক করলেন ২২ বছর বয়সী এই রিস্ট স্পিনার। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে ৩৩তম ওভারে ম্যাথু ওয়েড, অ্যাশটন অ্যাগার ও প্যাট কামিন্সকে টানা তিন বলে ফিরিয়ে গড়েন অনন্য কীর্তিটা। ৫ উইকেটে ১৪৮ রান করা অস্ট্রেলিয়া ১৪৮ রানে ৮ উইকেটে পরিণত হয়েই কার্যত ছিটকে যায় ম্যাচ থেকে। শেষ পর্যন্ত ২০২ রানে গুটিয়ে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তারা হারে ৫০ রানে। ক্যারিয়ারের নবম ওয়ানডেতে হ্যাটট্রিক করে উচ্ছ্বসিত কুলদীপ, ‘ভাবিইনি হ্যাটট্রিক হয়ে যাবে। বিশেষ পাওয়া এটা। গর্বেরও। আমার সেই হ্যাটট্রিকে ঘুরে যায় ম্যাচের মোড়। এক ওভারে তিন ছক্কা খাওয়ার চাপ নিয়েও নিজের বোলিং করে গেছি। হ্যাটট্রিকের আগে ধোনি ভাইকে বলেছিলাম, কী বল করব? তিনি জানিয়েছিলেন যা মনে চায়! কথাটা ভুলব না আমি। ’

ম্যাচ সেরা বিরাট কোহলির ৯২ আর আজিঙ্কা রাহানের ৫৫-তে ইডেনে ভারত করেছিল ২৫২ রান। স্টিভেন স্মিথের ৫৯ আর মার্কাস স্টোইনিসের হার না মানা ৬২ রানের পরও অস্ট্রেলিয়া গুটিয়ে যায় ২০২-এ। টানা দুই ম্যাচ জিতে র্যাংকিংয়ের শীর্ষে ওঠা ভারতীয় অধিনায়ক কোহলি কৃতিত্বটা দিচ্ছেন বোলারদের, ‘এত কম রান নিয়ে জিতব বলে ভাবিনি। শুরুতে ভুবনেশ্বর উইকেট নিয়ে ম্যাচে রেখেছিল আমাদের। আর কুলদীপের হ্যাটট্রিক নিশ্চিত করে জয়টা। অসাধারণ বোলার ও। ’ শচীন টেন্ডুলকার কুলদীপের প্রশংসায় টুইট করেছেন, ‘কুলদীপ-চাহাল যে শুধু ভালো বল করছে তা নয়, ম্যাচও ঘুরিয়ে দিচ্ছে। ’ নাইট রাইডার্স অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের উচ্ছ্বাস, ‘কেকেআর থেকে জাতীয় দল, তোমার বোলিং একই রয়ে গেছে। ’ ওয়ানডেতে না হলেও ২০০১ সালে ইডেনে টেস্টে হ্যাটট্রিক করেছিলেন হরভজন সিং। প্রতিপক্ষ সেই অস্ট্রেলিয়া। কুলদীপ ও চাহাল যে ছন্দে খেলছে তাতে দুই সিনিয়র স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজার দলে ফেরা কঠিন মনে হচ্ছে তাঁর কাছে, ‘আমার ১৬ বছর পর কুলদীপ হ্যাটট্রিক করল ইডেনে। ও আর চাহাল মিলে নিল ৫ উইকেট। চেন্নাইয়েও নিয়েছিল ৫ উইকেট। জানি না ২০১৯ বিশ্বকাপের দলে কোন দুজন স্পিনার থাকবে। তবে যে ছন্দে এই দুজন খেলছে তাতে কঠিন হবে অশ্বিন ও জাদেজার ফেরা। ’

নিজেদের হারিয়ে খোঁজা অস্ট্রেলিয়া এ নিয়ে টানা ৮ ওয়ানডেতে পায়নি জয়ের দেখা। এই ৮ ম্যাচের পরিত্যক্ত তিনটি আর হেরেছে ৫টিতে। গত পরশু ইডেনে ভালো শুরুর পর চাপের মুখে ভেঙে পড়াটাকে হারের কারণ মানছেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, ‘বারবার চাপের মুখে ভেঙে পড়ছি আমরা। ব্যাটসম্যানদের এমন ব্যর্থতায় হতাশ আমি। ’ হতাশাটা পেছনে ফেলতে না পারলে আরো দুঃসময় অপেক্ষা করছে স্মিথদের জন্য। পিটিআই


মন্তব্য