kalerkantho


অশান্তির আগুন নিয়ে মাঠে দুই দল

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



অশান্তির আগুন নিয়ে মাঠে দুই দল

মাঠে ঝগড়া নয়!:পেনাল্টি কে নেবে, তা নিয়ে মাঠের ভেতর কোনো ঝগড়া নয়—অনুশীলনে এদিনসন কাভানি ও নেইমারকে কি এটাই বললেন পিএসজি কোচ উনাই এমেরি? ছবি : এএফপি

অর্থই অনর্থের মূল, প্রবাদটা বোধ হয় ভালোভাবেই টের পাচ্ছেন নাসের আল খেলাইফি। দানি আলভেস যাচ্ছিলেন ম্যানচেস্টার সিটিতে, মাঝপথে টাকা বাড়িয়ে দিয়ে তাঁকে আনলেন প্যারিস সেন্ত জার্মেইতে।

নেইমারকেও আনলেন চোখ কপালে তোলা অঙ্কে। এতে করে দলের ভেতর অন্য ফুটবলারদের যে গাত্রদাহ হচ্ছে, সেটার প্রমাণ পাওয়া গেছে মাঠেই। পেনাল্টি কাণ্ড গড়িয়েছে বহুদূর, নেইমার ও এদিনসন কাভানির সঙ্গে খেলাইফির শান্তি আলোচনাও গেছে ভেস্তে। এমনকি বোনাসের লোভ দেখিয়েও টলানো যায়নি কাভানিকে! তারপর মপেঁলিয়রের বিপক্ষে নেইমারকে বসিয়ে রাখা। সব মিলিয়ে পিএসজির ড্রেসিংরুমের আবহাওয়াটা এ মুহূর্তে গরমই। বায়ার্ন মিউনিখের ড্রেসিংরুমেও যে ফুরফুরে হাওয়া বইছে এমনটা নয়। দলের ফুটবলাররাই কোচ কার্লো আনচেলোত্তির সমালোচনা করছেন, সাবেকরাও শোনাচ্ছেন বাঁকা কথা। এমন অবস্থাতেই ১৭ বছর পর ফের মুখোমুখি জার্মানি ও ফ্রান্সের শীর্ষ দুই ক্লাব—বায়ার্ন মিউনিখ ও প্যারিস সেন্ত জার্মেই।

লিওঁর বিপক্ষে পেনাল্টি নেওয়া নিয়ে নেইমার ও কাভানির দ্বন্দ্বের ১০ দিন হয়ে গেলেও উত্তেজনা থামার কোনো লক্ষণ নেই।

স্প্যানিশ গণমাধ্যম ‘স্পোর্ত’র খবর, কাভানি নাকি নেইমারকে বলেছেন, ‘নিজেকে কি মেসি মনে করো?’ পিএসজির ড্রেসিংরুম এখন স্পষ্টই দুই ভাগ হয়ে গেছে এ ব্যাপারটা নিয়ে। যেটা মঁপেলিয়রের বিপক্ষে ম্যাচে খানিকটা হলেও টের পাওয়া গেছে। এমনকি ক্লাব মালিক খেলাইফিকেও মিক্সড জোনে এসে বলতে হয়েছে, ‘আমার মনে হয় এই ম্যাচটাকে নিয়ে তারা (কোচিং স্টাফ) পর্যালোচনা করবে, যাতে সামনে উন্নতি করা যায়। ’ সব মিলিয়ে কোচ উনাই এমেরির ওপরও একটা চাপ জমা হচ্ছে। এমন সময়ই নিজ মাঠে জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের সামনে পড়ে যাওয়াটা আরো উদ্বিগ্ন করে তুলছে পিএসজি কোচকে। এরই মধ্যে প্রতিপক্ষ বায়ার্নের কোচ আনচেলোত্তি বলেছেন, ‘নেইমার ও এমবাপ্পের পিএসজিতে মানিয়ে নিতে আরো সময় লাগবে। ’ সব মিলিয়ে একেবারে ফুটন্ত কড়াইয়ের মতোই অবস্থা পিএসজির ড্রেসিংরুমের!

আনচেলোত্তির বায়ার্নের ড্রেসিংরুমেও অবশ্য বসন্তের সুবাতাস নেই! পত্রিকাগুলোয় বায়ার্নকে বলা হচ্ছে হলিউড একাদশ, কারণ খেলোয়াড়দের মাঠের পারফরম্যান্সের চেয়ে মাঠের বাইরের কর্মকাণ্ডই যে খবরে আসছে বেশি। নব্বইয়ের দশকে লোথার ম্যাথাউস ও ইয়র্গেন ক্লিন্সমানের সময়ে এমনটা হতো। এখন থোমাস ম্যুলার, আরিয়েন রবেন, ফ্রাঙ্ক রিবেরি ও রবার্ট লেভানদোস্কিরা কোচের সমালোচনা করেই খবরে আসছেন। গত মাসে ওয়ের্ডার ব্রেমেনের বিপক্ষে বেঞ্চে বসিয়ে রাখায় খেপে ম্যুলার বলেছিলেন, ‘আমি জানি না কোচ আমার কাছে ঠিক কোন গুণটা চাইছেন, তবে আমাকে বোধ হয় খুব একটা প্রয়োজন পড়ছে না। ’ চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম ম্যাচটাতেই আন্ডারলেখটের বিপক্ষে ম্যাচে রিবেরিকে তুলে নেওয়ায় রেগে জার্সি ছুড়ে মেরেছিলেন এই ফরাসি। সেই ম্যাচেই ১১ মিনিটে আন্ডারলেখটের কুমস লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়ায় ৮০ মিনিটই ১০ জনের দলের বিপক্ষে খেলেছিল বায়ার্ন, এর পরও গোল হয়েছিল মাত্র দুটো। এমন পারফরম্যান্সে খুবই ক্ষুব্ধ রবেন। সাবেক বায়ার্ন ফুটবলার পল ব্রিটনার মনে করেন, পেছনের দিকে এগোচ্ছে বায়ার্ন, ‘পেপ গার্দিওলার সময়ে যে পাগলামো আর অবাক করা একটা ব্যাপার ছিল, সেটা এই বায়ার্নে খুব মিস করি। ’ এত সব সমালোচনা নিতে পারছেন না আনচেলোত্তিও, ‘সমালোচনা সীমা ছাড়িয়েছে। আমি সমালোচনা শুনে অভ্যস্ত; কিন্তু সত্যি বললে এটা একটু বেশি বেশিই হয়ে যাচ্ছে। ’ উলভসবুর্গের সঙ্গে ২-০-তে এগিয়ে থেকেও ২-২ গোলে ড্র, মানুয়েল নয়ারের বদলি গোলরক্ষক সভেন উলরিখের হাস্যকর ভুল; সব মিলিয়ে ‘প্রেসার কুকার’-এর ভেতরেই পড়েছেন আনচেলোত্তি।

মাদ্রিদের ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানে মুখোমুখি অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ ও চেলসি। দুই ক্লাবের সম্পর্কটা পুরনোই। ফের্নান্দো তরেস, থিবো কোর্তোয়া ও ডিয়েগো কোস্তা, তাঁরা গায়ে চড়িয়েছেন দুই দলেরই জার্সি। এ ছাড়া দুই দলেরই একটা জায়গায় ভীষণ মিল! দুটো ক্লাবই শহরের নামি অন্য ক্লাবের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ঢাকতে চেয়েছে নিজেদের সাম্প্রতিক সাফল্য দিয়ে। মাদ্রিদের ক্লাব বললেই আসে রিয়ালের কথা, লন্ডনের ক্লাব মানেই যেন আর্সেনাল বা টটেনহাম। অ্যাতলেতিকো কঠিন পরিশ্রমী এক কোচ ও একদল একই ছাঁচের খেলোয়াড় দিয়ে এই বৃত্তটা ভেঙে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে, চেলসির বেলায় কাজ করেছে রোমান আব্রামোভিচের টাকা। সব শেষ পাঁচবারের মুখোমুখিতে অ্যাতলেতিকো জিতেছে দুইবার, চেলসি এববার আর ড্র হয়েছে বাকি দুই ম্যাচ। নিজেদের নতুন স্টেডিয়ামে আজই প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ খেলবে অ্যাতলেতিকো।

এ ছাড়া বার্সেলোনার খেলা স্পোর্তিং লিসবনের সঙ্গে, ম্যানইউর গন্তব্য মস্কো সেখানে খেলা সিএসকেএর বিপক্ষে। মুখোমুখি বাসেল বেনফিকা আর জুভেন্টাস খেলবে অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে। উয়েফা, সান, স্কাই স্পোর্টস


মন্তব্য