kalerkantho

সংক্ষিপ্ত

অবসরে রবেন

১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



অবসরে রবেন

পিয়েরে এমেরিক অবামায়েং, অ্যালেক্সিস সানচেস, আরতুরো ভিদাল, গ্যারেথ বেল, আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়াদের মতো আরিয়েন রবেনও দর্শক রাশিয়া বিশ্বকাপের। চূড়ান্ত আসরের টিকিট পেতে গত পরশু সুইডেনকে হারাতে হতো ৭-০ গোলে।

কিন্তু ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ায় ছিটকে গেছে নেদারল্যান্ডস। তাই জোড়া গোল করা ডাচ অধিনায়ক রবেন ম্যাচ শেষে জানিয়ে দিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলবেন না আর, ‘জাতীয় দলে খেলছি ১৪ বছর। বেশ লম্বা আর বর্ণিল সময় এটা। অনেক দিন ধরে ভাবছিলাম আন্তর্জাতিক ফুটবল ছাড়ার কথা। তবে সবার আগে শেষ করতে চেয়েছি বাছাই পর্ব। এখন সব মনোযোগ দেব ক্লাব ফুটবলে। আমি ইউরোপে বায়ার্ন মিউনিখের মত ক্লাবে খেলি। এখন সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব সেখানে। ’

২০০৩ সালে পর্তুগালের বিপক্ষে অভিষেক রবেনের।

জাতীয় দলের হয়ে ৯৬ ম্যাচে গোল করেছেন ৩৭টি। এর ছয়টি বিশ্বকাপে। অ্যাসিস্ট আছে ২৯টি। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে জোড়া গোল করে পাশে বসেছেন ডেনিস বার্গক্যাম্পের। জাতীয় দলের হয়ে দুজনের গোল যৌথ চতুর্থ সর্বোচ্চ ৩৭টি। ৫০ গোল নিয়ে সবাইকে ছাড়িয়ে রবিন ফন পার্সি। বিদায় বেলায় সেরা স্মৃতি হিসেবে রবেন জানালেন ২০১০ ও ২০১৪ বিশ্বকাপের কথা, ‘২০১০ ও ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ ভুলতে পারব না কখনো। ভাগ্য সহায় হলে ২০১০ সালে শিরোপাও জিততে পারতাম। এই দুটো টুর্নামেন্টে দারুণ এক দল হয়ে খেলেছি। সাফল্য পেতে ভবিষ্যতে সেভাবে খেলতে হবে ডাচদের। আশা করছি তরুণরা সেটা পারবে। ’ তরুণরা উঠে এলেও রবেনের মত ‘ইনসাইড কাটিং মাস্টার’ এর অভাব ডাচরা পূরণ করতে পারে কিনা সেটাই দেখার। এপি


মন্তব্য