kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

দেশিদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হলেও একেবারে অখুশি নই

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দেশিদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হলেও একেবারে অখুশি নই

প্রথম ম্যাচ হারের পর আর হারেনি ঢাকা ডায়নামাইটস। কাল আরেকটি জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে আসা কোচ খালেদ মাহমুদ তাই অনেকটাই নির্ভার।

নিজ দল ছাড়াও দেশের ক্রিকেটের অনেক বিষয় নিয়েও প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি

 

প্রশ্ন : ঢাকা ডায়নামাইটসের জয়ে বিদেশি খেলোয়াড়দের অবদান থাকছে বেশি। দেশীয়দের পারফরম করতে না পারায় উদ্বিগ্ন কি না?

খালেদ মাহমুদ : একটু উদ্বিগ্ন তো বটেই। তবে গত ম্যাচে অমি (জহুরুল ইসলাম) খুব ভালো করেছে। আজও সুযোগ ছিল। ওর এবং নাদিফ চৌধুরীর ভূমিকা ছিল ভিন্ন। আগ্রাসীভাবে খেলতে যাওয়ার কারণে আজ হয়তো পারেনি। সবাই প্রতিদিন ভালো করবে, এটি আশা করা ঠিক না। তবে আমরা জিতছি এবং তাতে সবার ছোটখাটো অবদান থাকছে। আজ নাদিফ যেমন দুর্দান্ত এক ক্যাচ ধরেছে।

রনি (আবু হায়দার), সাদ্দামরা ভালো বোলিং করেছে। বিদেশিরা বেশি ভালো করছে। দেশিদের ব্যাপারে আমি খানিক উদ্বিগ্ন ঠিক। তবে সব মিলিয়ে একেবারে অখুশি নই।

প্রশ্ন : ওপেনিং জুটি বদলাচ্ছে প্রায় প্রতি ম্যাচে। এটি কি ঠিক কম্বিনেশন খুঁজে পাচ্ছেন না, নাকি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন বলে?

মাহমুদ : এটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা নয়। বরং পরিকল্পনার অংশ। প্রতিপক্ষের বোলিং আক্রমণ বিবেচনায় নিয়ে ওপেনার ঠিক করি। কেননা আমরা চাই, প্রথম ছয় ওভারে যত বেশি সম্ভব রান তুলতে। লুইস তো আছেই, ও বিগ হিটার। আফ্রিদিকেও আমরা ওই ছয় ওভারের সুবিধা নেওয়ার জন্য শুরুর দিকে নামাতে চাই।

প্রশ্ন : নির্দিষ্ট ব্যাটিং অর্ডার দেখা যাচ্ছে না কেন?

মাহমুদ : টি-টোয়েন্টিতে নির্দিষ্ট ব্যাটিং অর্ডার রাখা সম্ভব না। এগুলো পরিকল্পনার অংশ। আজ যেমন সাঙ্গাকারার তিন নম্বরে ব্যাটিং করার কথা ছিল। কিন্তু ডানহাতি আফ্রিদি আউট হয়ে যাওয়ায় সাঙ্গাকে পাঠাইনি। লুইস আউট হলে হয়তো ও যেত। আমরা ডানহাতি-বাঁহাতি সমন্বয় ক্রিজে রাখতে চেয়েছি। ড্রেসিংরুমে চার-পাঁচজন হয়তো প্যাড পরে বসে থাকছে। যখন যাকে প্রয়োজন, তাকে পাঠাচ্ছি। আজ যেমন মোসাদ্দেক ব্যাটিংই পায়নি।

প্রশ্ন : বিপিএলে সামগ্রিকভাবেই বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা তেমন ভালো করছে না। কেন?

মাহমুদ : কেন ভালো করতে পারছে না, এর সঠিক উত্তর আমি দিতে পারব না। আগেই তো বলেছি, এটি উদ্বেগের জায়গা। কেননা এটি সবার জন্য পারফরম করার ভালো মঞ্চ। তবে মাত্র চার-পাঁচ রাউন্ডের খেলা শেষ হয়েছে। আরো ছয়-সাত রাউন্ড তো বাকি। আমার বিশ্বাস, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা তাতে ভালো করবে।

প্রশ্ন : স্থানীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজন এবং চন্দিকা হাতুরাসিংহের জায়গায় কোচ হওয়া নিয়ে আপনার মন্তব্য কী?

মাহমুদ : ওই টুর্নামেন্টের জন্য আমি দুই বছর ধরে বলে আসছি। এটি হলে নতুন ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়াটা ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর জন্য সহজ হবে। ক্রিকেটারদের জন্য বিপিএলে শুরু থেকে পারফরম করা সহজ হবে। আর কোচের ব্যাপারে বোর্ডের আগ্রহ বিদেশি কোচের ব্যাপারে। তবে যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে মাঝের সময়টা আমি কোচের দায়িত্ব পালন করতে প্রস্তুত।


মন্তব্য