kalerkantho


ডার্বি জিতল শেখ জামাল

২৪ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ডার্বি জিতল শেখ জামাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : তুলনামূলক ভালো খেলেও শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র পারেনি ভাগ্য ফেরাতে। আগের ম্যাচে ব্রাদার্সের কাছে হারের পর কাল শেখ জামালের কাছে হেরেছে ২-১ গোলে।

এই হারে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে তারা পঞ্চম স্থানেই আছে। আর শেখ জামাল টানা চতুর্থ জয়ে ১৪ খেলায় ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ দলের চেয়ে মাত্র ২ পয়েন্ট পেছনে। ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে চট্টগ্রাম আবাহনী। দিনের অন্য ম্যাচে ব্রাদার্স ৩-০ গোলে হারিয়েছে রহমতগঞ্জকে।

৩ মিনিটে গোল আদায় করে নেয় শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। গোলের উৎস ডিফেন্স থেকে পাঠানো ইয়াসিনের এক লং বল। রাফায়েলের কৃতিত্ব তিন ডিফেন্ডারের মধ্যে থেকেও বল নিজের নিয়ন্ত্রণে রেখে পৌঁছে দিয়েছেন শেখ রাসেলের জালে। এরপর পাল্টা চাপ দিয়ে তারা ম্যাচে ফেরে প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে। সোহেল রানার ক্রসে মিসরীয় ফরোয়ার্ড জাকি শারহান হেড করে ম্যাচ সমতায় ফিরিয়ে দলকে আবার উজ্জীবিত করার চেষ্টা করেন।

কিন্তু বিরতির পর রাসেল আবার আত্মহননের পথে। ৫৩ মিনিটে জাহেদ পারভেজের কর্নার কিক গোল খেয়ে বসে। এই কিকে পাঞ্চ করলেই বাইরে চলে যায়, কিন্তু গোলরক্ষক মাকসুদুর রহমান বলের নাগাল পেয়েও কাজটা ঠিকমতো করতে পারেননি। গোল খেয়ে আবার শুরু হয় তাদের ম্যাচে ফেরার লড়াই। ডান দিক ধরে বেশ কিছু ভালো আক্রমণে উঠেও পায়নি ম্যাচে ফেরার গোল, বারবার জামালের বক্সে তালগোল পাকিয়ে ফেলেছে। ৮৬ মিনিটে ডানদিক থেকে আসা সুন্দর ক্রসটিও কাজে লাগাতে পারেননি খালেকুরজামান। দূরের পোস্টে দাঁড়িয়ে দুর্বল হেড করে সমতায় ফেরানোর শেষ সুযোগটি নষ্ট করেছেন।

লিগ যত এগোচ্ছে রহমতগঞ্জের জারিজুরি শেষ হয়ে যাচ্ছে। মাঠে আগের মতো দাপুটে উপস্থিতি নেই তাদের। আগের পাঁচ ম্যাচে জয়হীন পুরনো ঢাকার দলটি কালও সুবিধা করতে পারেনি ব্রাদার্স ইউনিয়নের সঙ্গে। ম্যাচের ২৫ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে ডিফেন্সের ভুলে। একটা নিরীহ বল ভালোভাবে ক্লিয়ার করতে পারেননি সাদমান হোসেন এ্যানি। এই বলটিই বক্সের ভেতর থেকে কঙ্গোর স্ট্রাইকার সিও জুনাপিও জালে পাঠিয়ে এগিয়ে নেন ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। এরপরও খেলায় ফেরার চেষ্টা করেও রহমতগঞ্জ সেরকম সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। উল্টো ৫৩ মিনিটে মেজবাহর দুর্দান্ত এক গোলে পিছিয়ে পড়ে আরো। ৭২ মিনিটে জুনাপিওর অ্যাক্রোবেটিক ভলিটি জালে গেলে তখনই ব্যবধান আরো বড় হয়। সেটা না হলেও মিনিট তিনেক বাদে ঠিকই ৩-০ গোলের ব্যবধানে নিয়ে যান জুনাপিও। কাউন্টারে সতীর্থের চমৎকার এক থ্রু বলে খুলে যাওয়া গোলমুখে দাঁড়িয়ে কঙ্গোর ওই স্ট্রাইকার নিজের দ্বিতীয় গোল করে ব্রাদার্সকে বড় জয় উপহার দিয়েছেন। অথচ প্রথম লেগে তারা হেরেছিল ১-০ গোলে। কালকের জয়ে ব্রাদার্স ১৩ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে আর ১ পয়েন্ট কম থাকায় কামাল বাবুর রহমতগঞ্জ নবমে।


মন্তব্য