kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

ছেলেদের আগে মেয়েরা বিশ্বকাপ ফুটবল খেলবে

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ছেলেদের আগে মেয়েরা বিশ্বকাপ ফুটবল খেলবে

এ দেশের মহিলা ফুটবলের শুরুর সময়টা দেখেছেন সাবিনা খাতুন। নিজেও এখনো খেলছেন সিনিয়র জাতীয় দলে। অনূর্ধ্ব-১৫ দলের সঙ্গেও আছেন সহকারী কোচ হয়ে। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবলে বাংলাদেশের সম্ভাবনা এবং দেশের নারী ফুটবলের বিবর্তন নিয়ে কথা বলেছেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে

 

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : এবার অনূর্ধ্ব-১৫ দলটা তো নতুন, বয়সের কারণে অনেক খেলোয়াড় বাদ পড়েছে। কেমন হয়েছে দল?

সাবিনা খাতুন : এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ দলের সঙ্গে মেলালে নতুন মনে হবে। তবে এই দলের সবার অভিজ্ঞতা অনেক এবং তারা অনেক দিন ধরে একসঙ্গে খেলছে। প্রত্যেকটি বিভাগে ভালো খেলোয়াড় আছে। যে রকম দল হয়েছে তাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ক্ষমতা আছে।

প্রশ্ন : দলে তো কৃষ্ণার মতো ফরোয়ার্ড নেই। এটা কি দুর্বলতা?

সাবিনা : কৃষ্ণা না থাকলেও আনু চিং-শামসুন্নাহার আছে, দুজনই খুব ভালো ফরোয়ার্ড। গোল করার অনেক খেলোয়াড় আছে দলে, শুধু স্ট্রাইকাররা গোল করে না, মাঝমাঠের খেলোয়াড়রাও গোল করে। এই দলের সেরকম কোনো দুর্বলতা নেই। তবে শক্তিশালী দিক হলো মাঝমাঠ, সিনিয়র দলের সবাই আছে মিডফিল্ডে। ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করার সামর্থ্য বেশি আমাদের দলের। এই দল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই খেলবে এই টুর্নামেন্টে।

প্রশ্ন : নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের খেলা শুরু হলেও মূল প্রতিপক্ষ নিশ্চয়ই ভারত...

সাবিনা : সেটা তো অবশ্যই। ভারতের সিনিয়র দলের বিপক্ষে আমরা এখনো জয় না পেলেও বয়সভিত্তিক ফুটবলে তাদের হারিয়েছি। এখন এই অঞ্চলের লড়াইটা হয়ে গেছে আসলে বাংলাদেশ আর ভারতের মধ্যে। দুই দলের লড়াইয়ে যারা জিতবে তারাই সেরা।

প্রশ্ন : একটা সময় তো ভারত অনেক এগিয়ে ছিল শক্তিতে। তখন মাত্র বাংলাদেশের মহিলা ফুটবলের শুরু হয়েছে, সেই সময় আর এখনকার মহিলা ফুটবলকে তুলনা করলে কেমন মনে হয়ে?

সাবিনা : আমি খেলা শুরু করেছি ২০০৯ সালে। তার দু-এক বছর আগে থেকে মহিলা ফুটবলের চর্চা শুরু হয়েছে। অনেক প্রতিকূলতাকে জয় করে মহিলা ফুটবলের শুরু হয়েছে, ধীরে ধীরে এগিয়েছে। এরপর গত কয়েক বছরে চেহারা বদলে গেছে পুরোপুরি। এখন মেয়েরা লড়াই করে, বাংলাদেশ জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামে। তার পরও যাদের ৪০/৫০ বছরের মহিলা ফুটবলের ঐতিহ্য আছে তারা তো এগিয়ে থাকবেই। তবে আমাদের মহিলা ফুটবল এখন সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছে, প্রায় সারা বছর ট্রেনিংয়ের মধ্যে থাকছে। ফলে এর বিকাশ অব্যাহত থাকবে।

প্রশ্ন : দেশের ছেলেদের ফুটবলের সঙ্গে তুলনা করলে...

সাবিনা : ছেলেদের ফুটবল নিয়ে সেরকম কিছু বলতে চাই না, ফেডারেশন চেষ্টা করছে তাদের উন্নতির জন্য। তবে আমাদের মহিলা ফুটবলের উন্নতি হচ্ছে খুব দ্রুত। আমার মনে হয় ছেলেদের আগে বাংলাদেশের মেয়েরা বিশ্বকাপ ফুটবল খেলবে।



মন্তব্য