kalerkantho


কৌতিনিয়ো অবশেষে বার্সেলোনার!

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



কৌতিনিয়ো অবশেষে বার্সেলোনার!

সেস্ক ফ্যাব্রেগাস আর্সেনাল থেকে বার্সেলোনায় ফিরে যেতে যে কৌশল অবলম্বন করেছিলেন, সেই একই কৌশল অবলম্বন করলেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো! এমনটাই লিখেছে ব্রিটিশ পত্রিকা মেট্রো। অবশ্য অনেকটা একই রকম গল্পটা। ফ্যাব্রেগাসকে পেতে বার্সেলোনার একের পর এক প্রস্তাব হার মানিয়েছিল টেলিভিশনের সোপ অপেরাকেও! কৌতিনিয়োর বেলাতেই প্রক্রিয়াটা এমনই দীর্ঘমেয়াদি। গোটা গ্রীষ্মকালীন দলবদলের সময়টা জুড়েই একের পর এক প্রস্তাব অ্যানফিল্ডে পাঠিয়েছে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ। টাকার অঙ্ক, অ্যাড অন অনেক কিছুই জুড়েছে একে একে। কৌতিনিয়োও দলবদলের অনুরোধ জানিয়েছিলেন ক্লাবের কাছে। কিন্তু রাজি হয়নি লিভারপুল। গত জানুয়ারিতেই যে খেলোয়াড়ের সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তি করেছে তারা, তাঁকে এত সহজে কী করেই বা ছেড়ে দেয়! অবশেষে রাজি হয়েছে দুই পক্ষই। ১৪২ মিলিয়ন পাউন্ডে অ্যানফিল্ড ছেড়ে ন্যু ক্যাম্পে যাচ্ছেন এই ব্রাজিলিয়ান।

স্পেনের পত্রপত্রিকাগুলো জানিয়েছে, এরই মধ্যে লিভারপুল সতীর্থদের বিদায় জানিয়ে দিয়েছেন ২৫ বছর বয়সী কৌতিনিয়ো। লিভারপুলের মধ্য-মৌসুমের আবুধাবি সফরেই তিনি বিদায় নিচ্ছেন ইংলিশ ক্লাব থেকে। এএসের খবর, গতকালই বিমানে চেপেছেন তিনি, আজ লেভান্তের বিপক্ষে বার্সেলোনার ম্যাচে দর্শকসারিতে দেখা যেতে পারে তাঁকে। ক্লাবের রেকর্ড ফি নিয়েই লিভারপুল ছাড়ছে তাঁকে। ১০৭ মিলিয়ন পাউন্ড আপফ্রন্ট বা নগদ, সঙ্গে অ্যাড অন অর্থাৎ অন্যান্য শর্তসাপেক্ষে পাওনা মিলিয়ে চুক্তির মোট মূল্য ১৪২ মিলিয়ন পাউন্ড। এই অঙ্কের ট্রান্সফার ফি নিয়ে নেইমারের পর বিশ্বের দ্বিতীয় দামি খেলোয়াড়ে পরিণত হলেন কৌতিনিয়ো।

কিছুদিন আগেই নাইকি তাদের ওয়েবসাইটে কৌতিনিয়োর নাম লেখা জার্সি বিক্রির বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেও পরে তা সরিয়ে ফেলে। জানানো হয় কারিগরি ত্রুটির কারণেই এমনটা ঘটেছে। তবে শেষ পর্যন্ত সেই খবরটাই হয়েছে সত্যি। কৌতিনিয়ো ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই সই করবেন বার্সেলোনায়। কৌতিনিয়োর বার্সেলোনায় আগমনে অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেল আর্দা তুরানের ন্যু ক্যাম্প থেকে বিদায়। জোর খবর, এই তুর্কি মিডফিল্ডারের ৭ নম্বর জার্সিটাই উঠবে কৌতিনিয়োর গায়ে। বার্সেলোনায় পায়ের নিচে মাটি খুঁজে না পাওয়া তুরান কথা বলছেন মেজর লিগ সকারের দল শিকাগো ফায়ারের সঙ্গে। হাভিয়ের মাসচেরানোরও ন্যু ক্যাম্প ছাড়াটা নিশ্চিত, তাঁর গন্তব্য চীনের হেবেই ফরচুন।

কৌতিনিয়োকে বিক্রির টাকাও অবশ্য অ্যাকাউন্টে ধরে রাখতে পারছে না লিভারপুল। ভার্জিল ফন ডাইককে তারা কিনেছে ৭৫ মিলিয়ন পাউন্ডে, লিপজিগ থেকে নাবি কেইটাকেও ৫৫ মিলিয়ন পাউন্ডে কেনার পথে অনেকটাই এগিয়েছে তারা। বিবিসি, মেট্রো


মন্তব্য